| প্রচ্ছদ

করোনামুক্তিতে উহানে আতশবাজি

পুন্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪২ বার। প্রকাশ: ২১ মার্চ ২০২০ ।

করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের উহানে টানা তিন দিন কোনো কোভিড-১৯ রোগী ধরা না পড়ায় শহরের তল্লাশিচৌকিগুলো সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় সেখানকার কেউ কেউ আতশবাজি পুড়িয়ে তল্লাশিচৌকি অপসারণ উদ্‌যাপন করছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর গত জানুয়ারি মাসে উহান শহর লকডাউন ঘোষণা করা হয়। ভাইরাসটি যেন না ছড়ায় সেজন্য মানুষের চলাচল বন্ধে তল্লাশিচৌকি বসানো হয়। গত তিনদিন সেখানকার পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় শুক্রবার থেকে শুরু তল্লাশিচৌকিগুলোর অপসারণ শুরু হয়। সেখানকার জীবন ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে। উহানের এই স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসাকে বিশ্বব্যাপী বড় অর্জন হিসেবে দেখা হচ্ছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে এমনটা জানিয়ে ইতিমধ্যে উহানে স্থাপিত ১৬টি অস্থায়ী হাসপাতাল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। চীনের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে আসা চিকিৎসক, নার্স ও স্বেচ্ছাসেবীরা নিজ নিজ প্রদেশে চলে গেছেন। মানুষ কাজে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে শহরের বাইরে যাওয়ার ওপর এখনো কড়াকড়ি অব্যাহত আছে।

চীনের কোথায় নতুন করে করোনাভাইরাসে কেউ আক্রান্ত হননি। তবে শুক্রবার পর্যন্ত ২৬৯ জন বিদেশ থেকে আক্রান্ত হয়ে চীনে এসেছেন। করোনা সন্দেহে গত মঙ্গলবার একজনকে পরীক্ষা করে নেগেটিভ পাওয়া যায়। বৃহস্পতিবার আরেক পরীক্ষা পজিটিভ হয়। কিন্তু শুক্রবার তৃতীয় দফায় পরীক্ষাতেও পুনরায় নেগেটিভ ফল আসে। ৬২ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির জ্বর বা কাশি নেই। ফলে তাঁকে আক্রান্ত ঘোষণা করা হয়নি।

মন্তব্য