| প্রচ্ছদ

নওগাঁয় ২৪ ঘন্টায় হোম কোয়ারেন্টাইনে ৮৮৪ জন

নওগাঁ প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৮১ বার। প্রকাশ: ২২ মার্চ ২০২০ ।

নওগাঁয় ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে বিদেশ থেকে আসা ৮৮৪ জন কে নতুন করে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।  শনিবার সকাল পর্যন্ত নওগাঁর ১১ উপজেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে ছিলো ২০৪ জন। রোববার সকালে তা বেড়ে দাড়িয়েছে ১ হাজার ৮৫ জনে। একদিনের ব্যবধানে ৮৮৪ জন কে হোম কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে। আজ রোববার বেলা ১২ টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নওগাঁর সিভিল সার্জন আখতারুজ্জামান আলাল।
সম্প্রতি বিভিন্ন দেশ থেকে নওগাঁয় আসা প্রবাসিদের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা রয়েছে। নওগাঁ সদরসহ ১১ উপজেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা এসব ব্যক্তিরা ইতালী, সৌদি আরব, কুয়েত, কাতার, সিঙ্গাপুর, চীন, ব্রনাই, মালয়েশিয়া, জাপান, লেবানন, কঙ্গো, ফ্রান্স, ভারত, ওমান, দুবাইসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত ছিলেন। 
নওগাঁর সিভিল সার্জন আখতারুজ্জামান আলাল জানান, আজ শনিবার সকালে ছাড়পত্র দেয়া হয় ৩ জনকে। এ নিয়ে গত ৪/৫ দিনে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ৪২ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। 
নওগাঁর সিভিল সার্জন আখতারুজ্জামান আলাল জানান, গত কয়েকদিনে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ১ হাজার ৮৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এর মধ্যে নওগাঁ সদর উপজেলায় ২০৯ জন, রানীনগর উপজেলায় ৯১ জন, আত্রাই উপজেলায় ১০৪ জন, মহাদেবপুর উপজেলায় ১৩৮ জন, মান্দা উপজেলায় ১০০ জন, বদলগাছি উপজেলায় ১০৬ জন, পত্নীতলা উপজেলায় ১৩৩ জন, ধামইরহাট উপজেলায় ৩১ জন, নিয়ামতপুর উপজেলায় ৭৫ জন, সাপাহার উপজেলায় ৭০ জন ও পোরশায় ৩৫জন হোম কোয়ারেন্টিনে আছে। 
নওগাঁর সিভিল সার্জন আখতারুজ্জামান আলাল বলেন, হোম কোয়ারেন্টিনে প্রত্যেককে ১৪ দিন থাকতে হবে। এ সময়ের মধ্যে করোনা ভাইরাসের কোন লক্ষন দেখা দিলে তারা মোবাইলে সরাসরি সিভিল সার্জনের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা প্রত্যেককে বাইরে চলাফেরা না করে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।
তিনি আরও জানান, হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ব্যক্তিরা যেন বাড়ির বাইরে আসতে না পারে সেজন্য স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারী করা হচ্ছে। পাশাপাশি জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ বাহিনী মনিটরিং জোরদার করেছে। জরুরী প্রয়োজনে মেডিক্যাল টিম প্রস্তুত আছে। জরুরী বা গুরুত্বর কিছু হলে জরুরী ভিত্তিতে অবশ্যই প্রয়োজনীয় সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য