| প্রচ্ছদ

দেশেই তৈরি হচ্ছে পিপিই

পুন্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৩ বার। প্রকাশ: ২২ মার্চ ২০২০ ।

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় চিকিৎসক-সেবিকা ও অন্য কর্মীদের সুরক্ষা পোশাক তৈরি করছেন মার্কস অ্যান্ড স্পেনসারের (এমঅ্যান্ডএস) কান্ট্রি ডিরেক্টর স্বপ্না ভৌমিকের নেতৃত্বে বুয়েটের একদল অ্যালামনাই সদস্য। অন্যদিকে পে ইট ফরওয়ার্ড আর অনেস্ট টিমের পক্ষে এর সমন্বয়ে থাকছে সোনার বাংলা ফাউন্ডেশন। স্বপ্না ভৌমিক ও সোনার বাংলা ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর মোহাম্মদ ওয়াহিদ হেসেন সোশ্যাল মিডিয়ায় পৃথক পোস্টে এসব তথ্য জানিয়েছেন।
শনিবার (২১ মার্চ) নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক স্ট্যাটাসে স্বপ্না ভৌমিক জানান, বুয়েটের একদল অ্যালামনাই আর আমার দল মিলে তৈরি করছি পিপিই, সহযোগিতা করছে এফসিআই। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিয়ে তারা এ পোশাক তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন। খবর সময়টিভি অনলাইন
ফেসবুকে শামস রশীদ জয় নামের একজন বিস্তারিত লিখতে গিয়ে জানিয়েছেন, স্বপ্নার উদ্যোগে করোনা মোকাবিলায় ডাক্তার ও নার্স, রোগী, অন্যান্য জরুরি সেবার সদস্যদের জন্য চার লাখ পিপিই (পারসোনাল প্রোটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট) তৈরির কাজ শুরু করেছে মার্ক্স অ্যান্ড স্পেন্সার। সারা দিন চলেছে ফ্যাব্রিকের সন্ধান, বুয়েট অ্যালামনাই সদস্যদের সহায়তায় হয়েছে নকশা। সন্ধ্যাতেই পাওয়া গেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন। এগুলো বানানো হচ্ছে মার্ক্স অ্যান্ড স্পেন্সারের সঙ্গে নিয়মিত কাজ করা গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিগুলোতে। ১০-১২ দিনের মধ্যেই চার লাখ তৈরি হয়ে যাবে বলে প্রত্যাশা মার্ক্স অ্যাণ্ড স্পেন্সারের।
অন্যদিকে পে ইট ফরওয়ার্ড নামের এক গ্রুপ ও নিজের ফেসবুকে মোহাম্মদ ওয়াহিদ হেসেন এক পোস্টে লেখেন, আগামীকাল থেকেই আমরা পিপিই প্রোডাকশনে যাচ্ছি। এত্তো সাহস কোথায় পেলাম! বেশকিছু কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান, মাল্টিন্যাশনাল, এনজিও আর দেশ-বিদেশের অনেক ব্যক্তি- প্রতিষ্ঠান আমাদের সঙ্গে যুক্ত হতে চাইছেন। আর, চাইবেন নাইবা কেন? এই ডাক্তার, এই নার্স, এই স্বাস্থ্যকর্মীরাতো আমাদেরই সন্তান; আমরা ওদের জন্য করবো নাতো কে করবে?
তিনি আরও লেখেন, আমরা ওদের সুরক্ষার ব্যবস্থা না করলে, ওরা কী করে আমাদের সেবা দেবে? 

মন্তব্য