| প্রচ্ছদ

বিএনপির মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ

পুন্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৬ বার। প্রকাশ: ২৩ মার্চ ২০২০ ।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে রক্ষায় বিনামূল্যে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করেছে বিএনপি। সোমবার সকালে নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ড্যাব এর উদ্যোগে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এসব সামগ্রী বিতরণ করেন। খবর সমকাল অনলাইন

রিজভী বলেন, আমরা একটা ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছি। শতাব্দীর পর এতো বড় এক মহাদুযোর্গ এই পৃথিবীতে আসেনি। বিএনপি মানুষের পক্ষে, জনগণের পক্ষে কাজ করে, এই দুযোর্গে যতটুকু সম্ভব এবং যেভাবে সম্ভব তাদের পাশে দাঁড়ানো- এটা বিএনপি গঠনের মূল লক্ষ্য। সেই লক্ষ্যকে ধারণ করে যারা জাতীয়তাবাদী চিন্তা-চেতনায় বিশ্বাসী, যারা গণতন্ত্রে বিশ্বাসী সেই চিকিৎসক সমাজ তাদের মহান ব্রত নিয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং মাস্ক বিতরণ করছেন।

রিজভী অভিযোগ করে বলেন, এই দুযোর্গময় পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য সরকারের যে দায়-দায়িত্ব পালন করার কথা ছিল সেটা তারা পালন করেনি। এজন্যই দেশে এক মহাদুযোর্গ ধেয়ে আসার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, সরকার অনেক বিষয় গোপন করছে। আজকে কোনটা নিউমোনিয়া, কোনটা করোনা পজেটিভ এটা নির্ণয় করতে পারছে না ডাক্তাররা। কারণ সেই প্রস্তুতি তারা আগে থেকে নেয়নি। এই সরকার ভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকার কারণে আজকে লাখ লাখ মানুষ বিভিন্ন সমুদ্র বন্দর দিয়ে, বিমানবন্দর দিয়ে দেশে ঢুকেছে। সেই সময়ে তাদের করোনা সনাক্তকরণ করার দরকার ছিল। কিন্তু সরকার তখন সেটা করেনি।

সেলফ কোয়ারেনটাইটের সিল নিয়ে প্রশ্ন তুলে রিজভী বলেন, পৃথিবীর কোনো দেশে এভাবে সিল মেরে সেলফ কোয়ারেইটাইনের কথা শোনা যায়নি। এটা কোনো দেশ করেনি। সেলফ কোরাইনটাইন করে রোগী বাড়িতে থাকবে। তাহলে তো বাড়ির অন্যান্য সদস্যরা আক্রান্ত হবে। রোগীর ভাই-বোন, তার আত্মীয়-স্বজন আক্রান্ত হবে। তারা যখন বাজারে আসবে সেখানকার লোকজন ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এই রকম দায়িত্বজ্ঞানহীনতার পরিচয় দিয়েছেন সরকার। এ সময়ে ড্যাব সভাপতি ড. হারুন আল রশিদ, ডা. এরফানুল হক সিদ্দিকী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য