| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পাঁচ : আহত বিশ

শেরপুর(বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৭৬ বার। প্রকাশ: ২৫ মার্চ ২০২০ ।

বগুড়ার শেরপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচজন নিহত ও অন্তত বিশজন আহত হয়েছেন। এরমধ্যে উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের ঘোগা বটতলা এলাকায় বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে চারজন ও মহিপুর জামতলা নামক স্থানে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে একজন নিহত হন। বুধবার (২৫মার্চ) ভোররাত থেকে বেলা পৌনে বারোটার মধ্যে এসব দুর্ঘটনা ঘটে।
শেরপুর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন কর্মকর্তা মো. রতন হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বেলা পৌনে বারোটার দিকে বগুড়া থেকে ছেড়ে যাওয়া সিরাজগঞ্জগামী লাব্বাইক পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস (ঢাকা মেট্টো ব-১৫-৬৮৮৯) উক্ত স্থানে পৌঁছলে বিপরীত থেকে আসা লবণ বোঝাই ট্রাকের (ঢাকা মেট্টো ট-১৩-১৬৬৮) মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় লবণ বোঝাই ট্রাক উল্টে তিন যাত্রী ও দুর্ঘটনা কবলিত বাসের চালক ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এছাড়া উক্ত ঘটনায় অন্তত পনেরজন আহত হন। এরমধ্যে তিন থেকে চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের সবাইকে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ও পরে বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তবে দুঘটনায় হতাহতদের পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া সম্ভব হয়নি। তবে নিহতরা সবাই পুরুষ। তাদের বয়স পঁচিশ থেকে চল্লিশের মধ্যে হবে। তাঁরা সবাই শ্রমজীবি মানুষ। এছাড়া এই দুর্ঘটনায় হতাহতরা বগুড়া ও পাশের জয়পুরহাট-গাইবান্ধা জেলার বাসিন্দা হতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে বুধবার ভোররাতে উপজেলার মহিপুর জামতলা নামক স্থানে দুই ট্রাকের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মৃদুল হোসেন (২৩) নামের এক ব্যক্তি নিহত হন। আর পাঁচজন আহত হন। নিহত মৃদুল হোসেন জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি থানার চাঁচরা গ্রামের মো রফিকুল ইসলামের ছেলে। ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের এই কর্তকর্তা জানান, ঢাকাগামী পাথর ভোঝাই ট্রাক উক্ত স্থানে পৌঁছলে বিপরীত থেকে আসা নওগাঁগামী লবণ বোঝাই ট্রাকের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় লবণ বোঝাই ট্রাক উল্টে ঘটনাস্থলেই যাত্রী মৃদৃল মারা যান। আর এই ঘটনায় গুরুতর আহত পাঁচজনকে উদ্ধার করে বগুড়ায় শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হয় বলে জানান তিনি। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হুমায়ুন কবিরও এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, দুর্ঘটনায় হতাহতদের নাম পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। এসব পৃথক ঘটনায় থানায় মামলা নেয়া হবে।

মন্তব্য