| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় মায়ের সাথে পরকীয়ার সন্দেহে যুবককে পিটিয়ে হত্যা: মা ছেলে গ্রেফতার

আদমদিঘী(বগুড়া)প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৪৭৪ বার। প্রকাশ: ২৬ মার্চ ২০২০ ।

বগুড়ার আদমদীঘিতে মায়ের সাথে পরকীয়া সন্দেহে বাবু (২০) নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার করে লাশ ফেলে রেখে যাওয়ার চাঞ্চল্যকর খবর পাওয়া গেছে। গত বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার সান্তাহার ইয়ার্ড কলোনী একটি বাসায় এ ঘটনা ঘটে। রাতেই সান্তাহার সরকারি হার্ভে উচ্চবিদ্যালয় সংলগ্ন একটি ডাষ্টবিন থেকে লাশ উদ্ধার করে পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় শিমা বেগম (৪২) ও তার ছেলে বাধন (২০) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা সান্তাহার ইয়ার্ড কলোনীর মৃত রানা মাসুদের স্ত্রী ও ছেলে। এ ঘটনায় আদমদীঘি থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। নিহত বাবুর কোন পরিচয় পাওয়া যায়নি।
আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ জালাল উদ্দীন জানান, উপজেলার সান্তাহার ইয়ার্ড কলোনী এলাকার বাসিন্দা রানা মাসুদ মারা যাবার পর ওই বাসায় তার স্ত্রী শিমা বেগম ও ছেলে বাধন বসবাস করতো। তাদের বাসায় বাবু নামের ওই যুবক নিয়মিত যাতায়াত করতো। বাবুর যাতায়াতে ছেলে বাধনের সন্দেহের সৃষ্টি হয়। গত বুধবার রাতে বাবু নামের যুবক শিমার বাসায় গিয়ে গল্প করার সময় রাত ১০টায় বাধন বাসায় প্রবেশ করে বাবুকে দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে বেদম মারপিট করে। মারপিটে ঘটনাস্থলেই সে নিহত হয়। এরপর বাধন ও তার মা শিমা মরদেহ সান্তাহার হার্ভে সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের পাশের একটি ডাষ্টবিনে ফেলে পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দিলে লাশ উদ্ধারসহ মা ছেলেকে আটক করা হয়।

মন্তব্য