| প্রচ্ছদ

সঙ্গমরত অবস্থায় মৃত্যু! একইভাবে আটকা ছিল চার কোটি বছর

পুন্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১১৬ বার। প্রকাশ: ০৪ এপ্রিল ২০২০ ১৯:৫৬:৩৮ ।

সঙ্গমরত অবস্থাতেই মৃত্যু হয়েছিল তাদের। সেই অবস্থাতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে তারা। এরপর চার কোটি বছর ধরে আটকা ছিল একইভাবে। বিজ্ঞানীরা তাদের ফসিল দেখে তাজ্জব বনে যান।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানায়, সঙ্গমরত অবস্থাতেই দুটি মাছি গাছের আঠায় আটকেছিল এত দিন। এত দিন বলতে কতটা সময়! শুনলে হা হয়ে যেতে পারেন। চার কোটি বছর ধরে এভাবেই আটকে ছিল দুটি মাছি। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড সীমান্তবর্তী একটি এলাকা থেকে ওই দুটি মাছির জীবাশ্ম উদ্ধার করেছেন একদল বিজ্ঞানী। সঙ্গমরত অবস্থাতেই গাছের আঠায় আটকে যায় তারা। তার পর সেখানেই মৃত্যু। গাছের আঠায় তাদের দেহাবশেষ আটকে ছিল এতগুলো বছর ধরে। একইভাবে। যেভাবে তারা শেষবার মিলিত হয়েছিল।

পতঙ্গ বিশেষজ্ঞ জেফ্রে স্টিলওয়েল জানিয়েছেন, ‘গাছের আঠা শক্ত হয়ে গিয়েছিল স্বাভাবিকভাবে। আমরা সেই শক্ত গাছের আঠার অংশ মাইক্রোস্কোপে ফেলে দেখে অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। দুটো মাছির শরীরে একে অপরের সঙ্গে প্রায় আটকে থাকা অবস্থায় ছিল। এত কোটি বছর আগের জীবাশ্ম! আমি তো প্রথমে অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। তবে শুধু মাছি নয়, গাছের আঠায় আটকে থাকা পিঁপড়ে, মাকড়সারও জীবাশ্ম উদ্ধার করেছি আমরা। তবে এই দুটি মাছির জীবাশ্ম অদ্ভুত।’

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, কোটি বছর আগের এই পতঙ্গের জীবাশ্ম ও গাছের আঠা বিশ্লেষণ করে তারা অনেক নতুন তথ্য আবিষ্কার করতে পারবেন। চার কোটি বছর আগের বায়ুমণ্ডল, প্রাণী জগতের গতিবিধি সম্পর্কেও ধারণা পাওয়া যেতে পারে বলে মনে করছেন তারা। কোটি বছরের পুরোনো দুটি মাছির জীবাশ্ম উদ্ধারের ঘটনাকে তাই বিজ্ঞানের জগতে গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার বলে মনে করছেন তারা।

মন্তব্য