| প্রচ্ছদ

২ হাজার নতুন চিকিৎসক নিয়োগে পিএসসির সুপারিশ

পুন্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৩ বার। প্রকাশ: ৩০ এপ্রিল ২০২০ ২০:২৮:৪৮ ।

করোনা মহামারী মোকাবিলায় আরও দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগের সুপারিশ করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। কমিশনের বিশেষ সভায় এই সুপারিশ অনুমোদন করা হয়। ইতিমধ্যে এই সুপারিশ জনপ্রশাসন ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে পিএসসির উপ-সচিব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিস্তারিত ফলাফল পিএসসির ওয়েবসাইটে দেয়া হয়েছে। খবর যুগান্তর অনলাইন 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ৩৯ তম (বিশেষ) বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কিন্তু পদ স্বল্পতার কারণে ইতিপূর্বে ক্যাডার পদে সুপারিশপ্রাপ্ত নয় এমন ৮ হাজার ১০৭ জন প্রার্থীর মধ্য হতে রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের চাহিদা অনুযায়ী বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডারের সহকারী সার্জন পদে নিয়োগের জন্য যথাযথ বিধি-বিধান অনুসরণপূর্বক রেজিস্ট্রেশন নম্বরধারী ২ হাজার জনকে কর্মকমিশন কর্তৃক সাময়িকভাবে সুপারিশ করা হয়েছে।

নিয়োগ প্রসঙ্গে পিএসসির এক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বলেন, ক্যাডার হিসাবে দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগের জন্য সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন ৩৯তম বিসিএসের অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে। স্বাস্থ্য ক্যাডারের সহকারী সার্জন হিসাবে তাদের নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়াও পাঁচ হাজার ৫৪জন নার্স নিয়োগের সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন ২০১৮ সালের সিনিয়র স্টাফ নার্স নিয়োগ পরীক্ষার অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে। নার্সদের ১০ম গ্রেডের নন-ক্যাডার দ্বিতীয় পদে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে।

গত রবিবার ৬ হাজার নার্স নিয়োগের চাহিদা পত্র পাওয়ার পর গত সোমবার ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগের চাহিদা পায় পিএসসি। সরকারের কাছ থেকে চাহিদা পত্র পাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে গত সোমবার থেকে সরকারি কর্ম কমিশনের ক্যাডার এবং নন-ক্যাডার পরীক্ষার শাখার কার্যক্রম বিশেষ ব্যবস্থায় চালু করে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি।

পিএসসি সূত্র জানায়, করোনা ঝুঁকির মধ্যে কমিশনের চেয়ারম্যান, সদস্যরা এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারী ফলাফল প্রস্তুত করার জন্য নিয়মিত অফিস করেছেন।

গত মঙ্গলবার পিএসসি জরুরি সভা ডেকে ৩৯তম বিসিএস থেকে নন-ক্যাডার পদে ৫৬৪জন সুপারিশ প্রাপ্তদের তালিকা বাতিল করে। নন-ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্তরা এবার ক্যাডারে যুক্ত হলেন।

মন্তব্য