| প্রচ্ছদ

চির-নূতনেরে দিল ডাক পঁচিশে বৈশাখ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪২ বার। প্রকাশ: ০৮ মে ২০২০ ১০:৩৩:১৫ ।

এসেছিলেন তিনি বাংলার সুখ-দুঃখের ঘরে এক প্রদীপ হয়ে; কিন্তু আপন সৃজনমহিমায় সে ঘর ছাড়িয়ে উদ্ভাসিত হয়েছেন বিশ্বসংসারে। বাঙালি এখনও পথ খুঁজে পায় সে আলোয়। আজ পঁচিশে বৈশাখ, বৃহস্পতিবার; আজ বাঙালির যাপিত জীবনে সর্বক্ষণ বিরাজমান সেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯তম জন্মজয়ন্তী।

কবিগুরু আজ থেকে ১৫৯ বছর আগে ১২৬৮ বঙ্গাব্দের এই দিনে (১৮৬১ খ্রিস্টাব্দ) কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুর পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর এবং সারদা দেবীর চতুর্দশ সন্তান তিনি। ১৯১৩ সালে নোবেল পুরস্কার জয়ের মধ্য দিয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা সাহিত্যকে বিশ্বসাহিত্যে মর্যাদাপূর্ণ আসনে অধিষ্ঠিত করেন। বাংলা সাহিত্যের এই প্রাণপুরুষ সমাজকল্যাণমূলক কাজেও রেখেছেন বিশেষ ভূমিকা। শিক্ষাবিস্তার, কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নসহ তার জনকল্যাণমূলক কাজগুলোও অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচনা পরিমাণে বিপুল, বিষয়ে বৈচিত্র্যময়। সাহিত্যের প্রতিটি শাখাই সমৃদ্ধ হয়েছে তার মেধা-মনন-সৃজনশীলতায়। প্রায় একক প্রচেষ্টায় তিনি বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে আধুনিক করে তুলেছেন। জীবনের শেষ পর্যায়ে চিত্রকলা চর্চায় মনোনিবেশ করে সেখানেও স্বতন্ত্রতার স্বাক্ষর রেখেছেন। বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীতের রচয়িতাও তিনি।

সার্ধশতবার্ষিকী পেরোনোর পরও রবীন্দ্রনাথ তাই বাঙালির জন্য অপরিহার্য। তিনি কেবল বাঙালির আনন্দ-বেদনা, উৎসব-অভিলাষে প্রতি মুহূর্তের অনুসঙ্গীই নন- সংকটের সাহস, প্রতিবাদ-প্রতিরোধের প্রেরণাও। এ জন্যই তাঁর জন্মদিন শুধু বাংলাদেশেই নয়, সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা বাঙালির কাছেই এক আনন্দঘন উৎসবের দিন।

তবে এবার করোনাভাইরাস সংক্রমণনিরোধে বিভিন্ন উৎসব জনসমাগম এড়িয়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে উদযাপনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এই জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় প্রায় ৫৫ মিনিটের একটি অনুষ্ঠান নির্মাণ করেছে। এ অনুষ্ঠানই দেশের বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচারিত হবে।

এ ছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন অনলাইন বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রবীন্দ্রজয়ন্তী উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন আয়োজন করেছে নানা অনুষ্ঠান। দেশের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন ছায়ানট আয়োজন করেছে 'ওই মহামানব আসে' শীর্ষক অনুষ্ঠান। আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় ছায়ানট সভাপতি সনজীদা খাতুনের গ্রন্থনায় সংগঠনটির ইউটিউব চ্যানেলে (www.bit.ly/chhayanaut) দেখা যাবে এ অনুষ্ঠান।

ইন্দিরা গান্ধী সংস্কৃতি কেন্দ্র (আইজিসিসি) আয়োজন করেছে 'ট্রিবিউট টু রবীন্দ্রনাথ টেগোর : এ রে অব হোপ থট টেগোরস ফিলোসফি' শীর্ষক অনুষ্ঠান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আইজিসিসির পেজে (www.facebook. com/IndiraGandhiCulturalCentre) অনুষ্ঠানটি শুরু হবে আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ, ভারতের শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিদ্যুৎ চক্রবর্তী ও লেখক-অনুবাদক অধ্যাপক ফখরুল আলম এবং ভারতের অনুবাদক ও গবেষক অধ্যাপক রাধা চক্রবর্তী এ অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।

এ ছাড়া অনলাইনে যৌথভাবে কবিগুরুর ১৫৯তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন করবে বাংলাদেশের উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ও ভারতের ক্যালকাটা কয়্যার। আজ শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা (পশ্চিমবঙ্গ সময় সকাল ৯.৩০ থেকে ১১.৩০) পর্যন্ত উদীচীর ফেসবুক পেজে (facebook.com/udichibd) এই অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে।

খবর সমকাল অনলাইন 

মন্তব্য