| প্রচ্ছদ

বগুড়ার শেরপুরে পৌরসভার সচিবকে পেটালেন কর্মচারীরা!

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ১২৭ বার। প্রকাশ: ১৪ মে ২০২০ ১৮:০৮:২২ ।

বগুড়ার শেরপুরে পৌরসভার সচিব ইমরুল মুজিবকে পিটিয়েছেন পৌরসভার কর্মচারীরা। বেতন-ভাতা না দেয়া ও পূর্ব শক্রতার জেরে ক্ষিপ্ত হয়ে কর্মচারীরা সচিবের কার্যালয়ে গিয়ে তাকে বেধড়ক মারপিট করে আহত করেন। এ ঘটনায়  বৃহস্পতিবার (১৪মে) সকালের দিকে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। অভিযোগে চারজনের নাম উল্লেখসহ আরও ১০-১২জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করা হয়। অভিযুক্তরা হলেন- পৌরসভার কর্মচারী মো. কোরবান আলী, মাহবুবুল আলম, আকতারুজ্জামান পল্টু ও মতিয়ার রহমান মতি। আহত সচিব ইমরুল মুজিব জানান, বুধবার (১৩মে) দুপুরের দিকে দাপ্তরিক কাজ করার সময় অভিযুক্ত কর্মচারীরা আমার কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। এরপর তাদের বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবি জানান। ঈদের আগেই তাদের বেতন-ভাতা দেয়া হবে বলে জানিয়ে দেই। কিন্তু এতে মানতে নারাজ তারা। এমনকি অকথ্য ভাষায় আমাকে গালিগালাজ করতে থাকেন। প্রতিবাদ করায় সন্ত্রাসী কায়দায় আমার ওপর হামলে পড়ে। একইসঙ্গে বেধড়ক মারপিট করে তাকে আহত করা হয়। এসময় আমার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন ও কিছু টাকা ছিনিয়ে নেয় তারা। পরে বিষয়টি পৌরসভার মেয়র ও থানা পুলিশকে জানিয়েছেন বলে জানান ভুক্তভোগী এই পৌর সচিব।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর পৌরসভার মেয়র আব্দুস সাত্তার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাটি অত্যান্ত দুঃখজনক। আমি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেইসঙ্গে ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছি।

অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা ও শেরপুর টাউন পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর হারুন অর রশিদ জানান, অভিযোগটি গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে বলে দাবি করেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এদিকে বক্তব্য জানতে চাইলে অভিযুক্তদের মধ্যে পৌর কর্মচারী আকতারুজ্জামান পল্টু নিজেরে নির্দোষ দাবি করে বলেন, ঈদের আগে কর্মচারীদের বেতনভাতা পরিশোধের জন্য কেবল সচিবকে অনুরোধ করা হয়। কিন্তু তিনি উত্তেজিত হয়ে গালিগালাজ শুরু করেন। এনিয়ে উভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়েছে। এরই বাইরে আর কোন ঘটনা ঘটেনি। অথচ তিনি থানায় কাল্পনিক অভিযোগ দিয়ে মিথ্যা নাটক মঞ্চস্থ করেছে বলে দাবি করেন তিনি।

 

মন্তব্য