| প্রচ্ছদ

বগুড়ার ধুনটে আরও এক গার্মেন্টস কর্মীর করোনা শনাক্ত

আমিনুল ইসলাম শ্রাবণ
পঠিত হয়েছে বার। প্রকাশ: ০৩ জুন ২০২০ ২২:৩৮:৪৩ ।

বগুড়ার ধুনট উপজেলার ঢাকা ফেরৎ আরও একজন গার্মেন্টস কর্মীর করোনা শনাক্ত হয়েছে। বুধবার রাতে বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এনিয়ে ধুনট উপজেলায় ১২জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। যার মধ্যে একজন সুস্থ্য হয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ মে কালেরপাড়া ইউনিয়নের আড়কাটিয়া গ্রামের আলহাজ্ব খলিলুর রহমান নামের এক কৃষক ইন্তেকাল করেন। ওই কৃষকের দাফনের পর তার করোনা উপসর্গ থাকার বিষয়টি প্রকাশ পায়। এ ঘটনায় গত ২৬ মে নিহত কৃষকের পরিবার, তার মৃতদেহ ধোয়া ও দাফন প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়া ১৪জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এরমধ্যে গত মঙ্গলবার (২ জুন) ৮জনের নমুনার ফলাফলে আসে। তারমধ্যে কেউ করোনায় আক্রান্ত নন। এছাড়া বুধবার রাতে আরও ৬জনের নমুনার ফলাফল এসেছে। এরমধ্যে ১জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। অন্যদের কেউ করোনায় আক্রান্ত হোননি।

অনুসন্ধানে জানা যায়, করোনায় আক্রান্ত ওই ব্যক্তির বয়স ৪২বছর। সে গাজিপুরের কোনাবাড়ী এলাকার একটি পোশাক কারখানায় চাকুরী করেন। সেখান থেকে ঈদের ১ সপ্তাহ আগে বাড়িতে ফেরেন। গত ২৪ মে নিহত খলিলুর রহমানের দাফন প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার কারনে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এরপর থেকে তাকে বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়। বুধবার রাতে তার করোনা শনাক্ত হয়েছে।

ধারনা করা হচ্ছে, ঢাকায় থাকা অবস্থায় তিনি করোনা আক্রান্ত হোন। কিন্তু এলাকায় তিনি বিষয়টি প্রকাশ করেন নি। নিহত কৃষকের দাফন প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার কারনে তিনি নমুনা দিয়েছিলেন। এদিকে ঢাকা থেকে ফেরার পর এবং নমুনা দেওয়ার পরও ওই গার্মেন্টস কর্মী ধুনট বাজার ও আড়কাটিয়া বাজারে নিয়মিত যাওয়া-আসা এবং বিভিন্ন দোকানে কেনাকাটা করেছেন। অন্যদিকে দাফন প্রক্রিয়া অংশ নেওয়া অপর ১৩জনের ফলাফল নেগিটিভ আসায় মৃত ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন না বলে ধারনা করা হচ্ছে।

ধুনট উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা বলেন, বুধবার কালেরপাড়া ইউনিয়নের আড়কা‌টিয়া গ্রা‌মের এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্ত হওয়া ব্যক্তির বাড়িটি লকডাউন করার প্রক্রিয়া চলছে।

মন্তব্য