| প্রচ্ছদ

অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে বার। প্রকাশ: ০৪ জুন ২০২০ ০১:১৭:২৯ ।

ইউনাইটেড হাসপাতালে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে হাসপাতালের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার রাতে মামলাটি করেন ওই ঘটনায় নিহত এন্থনী পলের জামাতা রোনাল্ড নিকি গোমেজ।
পুলিশের বরাত দিয়ে দেশ রুপান্তরের খবরে বলা হয়েছে, বুধবার রাত ৯টার দিকে গুলশান থানায় ইউনাইটেড হাসপাতালের চেয়ারম্যান, এমডি, প্রধান নির্বাহী, পরিচালক, দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও সেফটি সিকিউরিটির দায়িত্ব থাকা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নিকি গোমেজ বলেন, ওই অগ্নিকান্ডের ঘটনায় মৃত আত্মীয়ের লাশ দেড় দিন মর্গে রাখার জন্য ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অবিবেচকের মত তাদের কাছে বিল দাবি করেন। এমনকি তার কাছে হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসার জন্য দেড় লাখ টাকার ভাউচারও ধরিয়ে দেন। তিনি বলেন, এসব এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। তাছাড়া মানসিকভাবে বিপর্যন্ত থাকায় মামলা করতে কিছুটা দেরী হলো বলে তিনি জানান।

রোনাল্ড রিকি গণমাধ্যমকে আরও বলেন, ঘটনার দিন তিনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলা নিজের চোখে দেখেছেন। দুইবার করোনা টেস্ট নেগেটিভ আসার পরও তার স্বজনকে ইচ্ছাকৃতভাবে আইসোলেশন ইউনিটে রাখা হয়েছিল। আরো কয়েকজন করোনা নেগেটিভ রোগীকেও সেখানে রাখা হয়েছিল। এর কারন কি? তিনি বলেন, অগ্নিকান্ডের ঘটনায় নিহতের দায় সম্পূর্নটাই ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকেই নিতে হবে।

উল্লেখ্য, ওই অগ্নিকান্ডের ঘটনায় পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তারা হলেন- রিয়াজুল আলম (৪৫), খোদেজা বেগম (৭০), এন্থনি পল (৭৪), মনির হোসেন (৭৫) ও মাহাবুব (৫০)।

এদিকে গুলশান জোনের সহকারী কমিশনার রফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ইউনিাইটেড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে রোগী পুড়ে মারা যাওয়ার ঘটনায় নিহতের স্বজনের পক্ষ থেকে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে মামলা নেওয়া হয়েছে। এতে হাসপাতালটির চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ও পরিচালকসহ আটটি পদের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের আসামি করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

পুণ্ড্রকথা/জাআ

মন্তব্য