| প্রচ্ছদ

নওগাঁয় ব্যবসায়ীকে মারপিট ও চাদাঁবাজির ঘটনায় সেই ছাত্রলীগ সভাপতি ও তার দুই সহযোগী গ্রেফতার

নওগাঁ প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে বার। প্রকাশ: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৪:০৬:১২ ।

নওগাঁর মহাদেবপুরে বহুল আলোচিত ব্যবসায়ীকে মারপিট ও চাদাঁবাজির ঘটনায় অভিযুক্ত উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি  রাজু আহমেদ ও ২ সহযোগীকে আটক করেছে পুলিশ। জেলা পুলিশের একটি বিশেষ টিম মঙ্গলবার ঢাকার একটি এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করেছে। বুধবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাকিবুল আক্তার। বর্তমানে তাদের নওগাঁ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে রেখে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ চলছে বলে পুলিশের একটি সুত্র জানিয়েছেন। তবে তদন্তের স্বার্থে রাজুর দুই সহযোগির পরিচয় এই মহূর্তে বলা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

গত ৫ সেপ্টেম্বর নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলা সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আরএফএল ভিগো শোরুমের স্বত্তাধিকারী সোহেল রানার দোকানে একটি মোবাইল ফোনের মালিকানার জের ধরে রাজু ও তার সহযোগিরা শোরুমে প্রবেশ করে ওই ব্যবসায়ীকে মারপিট করে তাকে তুলে নিয়ে যায়। এসময় তার নিকট থেকে চাদাদাবি করে তারা। ব্যবসায়ী সোহেল রানার অবিযোগ তারা আমাকে মারপিট করে দোকানের ক্যাশবাক্স থেকে নগদ দেড় লাখ টাকা, বেশ কয়েকটি স্মার্ট ফোন ও একটি মোটরসাইকেল নিয়ে যায়। এই ঘটনায় গত ৭ সেপ্টেম্বর ছাত্রলীগ নেতা রাজু আহমেদ ও নয়ন সহ অজ্ঞাত আরও  ৬-৭ জনের বিরুদ্ধে মহাদেবপুর থানায় চাঁদাবাজী ও মারধরের মামলা করেন সোহেল রানা। এই ঘটনার পর থেকে রাজু তার সহযোগিরা পলাতক ছিল।  রাজু আহমেদ উপজেলার এনায়েতপুর ইউনিয়নের চকহরিবল্লভ আবাসন গুচ্ছ গ্রামের জিল্লুর রহমানের ছেলে  বলে জানা গেছে। 
এদিকে ব্যবসায়ী সোহেলের দোকানের সিসি ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিও ফুটেজে ছাত্রলীগ নেতা রাজু ও তার সঙ্গীরা মারধর করছে সেই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে।

এই ঘটনায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর কারন দর্শানো নোটিশের জবাবে মেয়াদ শেষে রাজু আহমেদ কে ছাত্রলীগ থেকে বহিস্কার করে জেলা ছাত্রলীগ।

এদিকে ছাত্রলীগের সভাপতি রাজু আহমেদ উত্থাপিত অভিযোগ বিষয়ে তার পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে । এই ঘটনায় রাজু নির্দোষ । কারন ব্যবসায়ী সোহেল রানা পরকিয়ার একটি ঘটনায় উপজেলার চাঁন্দাশ গ্রামের বিদেশ ফেরৎ এক ছেলের একটি মোবাইল ফোনসেট জোর করে কেড়ে নেয়। সেই মোবাইল সেট ও টাকা উদ্ধারের জন্যই সোহেল রানার দোকানে তারা গিয়ে ছিল। সোহেল রানা এখন যে অভিযোগ করছে তা মিথ্যা। তবে এই অভিযোগ উঠার আগেই রাজু নিজ থেকে তার পদ হতে পদত্যাগ করে।

এদিকে মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, পুলিশের একটি বিশেষ টিম ঢাকা থেকে তাদের আটক করে নওগাঁয় নিয়ে আসা হয়েছে। বর্তমানে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

মন্তব্য