| প্রচ্ছদ

ঘন ঘন সেলফি তোলেন? তা হলে আজই সাবধান হোন

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১৩৬ বার। প্রকাশ: ০৩ জানুয়ারী ২০১৯ । আপডেট: ০৩ জানুয়ারী ২০১৯ ।

বছর শেষের রাত হোক বা সারা বছরের নানা উৎসবমুখর সময়অথবা কোথাও বেড়াতে গিয়ে সেলফি তোলার অভ্যাস আমাদের পিছু ছাড়ে না। তবে অনেকেই আছেন, যাঁরা সেলফি তুলতে উৎসবের অপেক্ষা রাখেন না। যে কোনও মুহূর্তেই কেবল ইচ্ছার বশবর্তী হয়ে সেলফি তোলেন অনেকেই। আপনিও কি এমন স্বভাবের শিকার? তবে কিন্তু সাবধান হওয়ার সময় হয়েছে।

কেবল সেলফি তুলেই ক্ষান্ত হওয়া নয়, ফ্রন্ট ক্যামেরা ক্লিকের পরেই সোশ্যাল সাইটে তা আপলোড করাও চাই। এই ডিজিটাল যুগে এমন প্রবণতাকেই ভয় পাচ্ছেন চিকিৎসক মহল। সারা ক্ষণ ফ্রন্ট ক্যামেরার দিকে হাত বেঁকিয়ে ছবি তোলার স্বভাব ডেকে আনছে কারপাল টানেল সিনড্রোম।

হাতের কব্জির উপর চাপ পড়ায় হাতের পেশীতে ব্যথা শুরু হয়। সেখান থেকেই ব্যথা ছড়িয়ে পড়ে। এমনকি, ঘন ঘন সেলফি তোলার স্বভাবের জেরে অসাড় হয়ে যেতে পারে আঙুল। বাড়াবাড়ি হলে পঙ্গুও হতে পারেন কেউ কেউ। পরবর্তী কালে অস্ত্রোপচারেরও প্রয়োজন হতে পারে।

সম্প্রতি আমেরিকান স্কুল হেলথ অ্যাসোশিয়েশনের গবেষকরা এই অসুখের ভয়াবহতা সম্পর্কে সাবধান করেছেন। আইরিশ চিকিৎসকরা এই অসুখের নাম দিয়েছেন, ‘সেলফি রিস্ট’। শহরের অস্থিরোগ বিশেষজ্ঞ অমিতাভ নারায়ণ মুখোপাধ্যায়ও এই বিষয়টিকে খুব সহজ ভাবে দেখতে নারাজ।

তাঁর মতে, ‘‘অনেক ক্ষণ ধরে ফোন ধরে থাকলে কিংবা কব্জি বেঁকিয়ে সারা ক্ষণ সেলফি তুললে এমন রোগের প্রাদুর্ভাব ঘটে। বুড়ো আঙুলের স্নায়ুর উপর চাপ পড়তে থাকলে এই ব্যথা শুরু হয়। তার পর সেই ব্যথা তর্জনী ও মধ্যমা পর্যন্ত ছড়ায়। বাড়াবাড়ি হলে অস্ত্রোপচার করে আঙুলের নীচের স্নায়ুর উপর চাপ কমিয়ে দেওয়া হয়। তাই অস্ত্রোপচার আটকাতে এখন থেকেই সাবধান হওয়া উচিত।নিজের প্রিয় মানুষদের নিয়ে সেলফি তুলুন, কিন্তু তা যেন মাত্রাতিরিক্ত না হয়।’’

কেবল অসুখের ভয়ই নয়, সেলফি তুলতে গিয়ে অসাবধানতার কারণে প্রতি বছর বহু মানুষের মৃত্যুও হয়। তবু সেলফি তোলার অভ্যাস পিছু ছাড়ছে না এক শ্রেণির মানুষকে।

মন্তব্য