| প্রচ্ছদ

শুধু ডাক্তারি ডিগ্রী নয় প্রকৃত মানুষ হতে হবেঃ শজিমেক অধ্যক্ষ

মুজাহিদুল ইসলাম জাহিদ
পঠিত হয়েছে ৪৩৭ বার। প্রকাশ: ১১ জানুয়ারী ২০১৯ । আপডেট: ১৭ জানুয়ারী ২০১৯ ।

বগুড়ায় ২৮ তম ব্যাচ এমবিবিএস প্রথমবর্ষ শিক্ষার্থী পরিচিতি অনুষ্ঠান করেছে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক)। বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় কলেজের সামিয়া ইসলাম গ্যালারীতে অনুষ্ঠিত হয়। 

অনুষ্ঠানের সভাপতি ও শজিমেক অধ্যক্ষ এ কে এম আহসান হাবিব তার বক্তব্যে বলেন,  ২০১৮-১৯ সেশনে ১৫৯ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে। এদের মাঝে ছাত্রী ১০৬ ও ছাত্র ৫৩ জন। বর্তমানে ৯২১ জন অধ্যায়নরত। ২৫ জন পাকিস্তানী (যারা ইতিমধ্যে পাস করে গেছেন) ও ১২ জন অন্যদেশের শিক্ষার্থী। ১৩৩ জন এমবিবিএস পরবর্তি উচ্চতর ডিগ্রীতে অধ্যায়ন করছে। তাদের মধ্যে ৪৩ জন পাস করে গেছেন। কলেজে ১৪৬১ জন ডাক্তার হয়েছে, ১১৭ বিদেশে সেবা করছে।

তিনি আরও বলেন, তিনি যোগদানের পর ডিপ্লোমা ইন এ্যানাসথেসিয়া’র আসন বৃদ্ধিসহ ডিপ্লোমা ইন চাইল্ড, ডিপ্লোমা ইন ইএনটি, ডিপ্লোমা ইন অর্থো, ডিপ্লোমা ইন কার্ডিওলজি, ডিপ্লোমা ইন স্কিন অ্যান্ড ভিডি, এমফিল (ফিজিওলজি) ও এমডি (মেডিসিন) কোর্স চালু করতে সক্ষম হয়েছেন। কোর্সগুলি বিএসএমএমইউ হতে বগুড়ায় আনা ছিল অনেক কষ্টসাধ্য ব্যাপার। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) সহ-সভাপতি ও বগুড়া জেলা সভাপতি ডাঃ মস্তোফা আলম নান্নু। আরও উপস্থিত ছিলেন শজমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডাঃ মোঃ গোলাম রসূল, মেডিসিন বিভাগের প্রধান জাকির হোসেন, কার্ডিওলোজি বিভাগের প্রধান মুজিবুর রহমান সেলিম,

নবীন শিক্ষার্থী জান্নাতুল ফেরদৌস তার  শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন- ছোট বেলায় আমি ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখতাম। আর এপ্রনের প্রতি ভালবাসা ছিল শিশুকাল থেকেই যখন তার নামও জানতাম না। আজ এমবিবিএস পড়ার সুযোগ পেয়ে নিজেকে গর্বিত বোধ করছি। আজ আমার স্বপ্ন পুরন হতে যাচ্ছে। তবে আমি এও জানি স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা এর থেকেও ঢের কঠিন।

বক্তারা ডাক্তারি মহৎ পেশা উল্লেখ করে বলেন- ২য় প্রজন্মের মেডিকেল কলেজ হলেও ১ম স্তরের সুবিধা রয়েছে। হোস্টেল ও ক্লাস সুবিধায় দেশের অন্য সবার থেকে এগিয়ে। অনলাইন জরিপে ১ম অবস্থানে আছে। তারা বলেন মেয়ে শিক্ষার্থী তুলনামূলক বেশী হওয়ায় সাময়িক হোস্টেল সমস্যা আছে। তবে নতুন ভবন নির্মান হলে সমস্যা সমাধান হবে।

অবিভাবকদের মাঝে  বক্তব্য প্রদান করেন সাংবাদিক সমুদ্র হক ।তিনি বলেন- নবাগত শিক্ষার্থীদের সু-শিক্ষা দানে শিক্ষকদের মনোযোগী হতে হবে। সেই সাথে তিনি মেয়েদের হোস্টেল ব্যাবস্থাপনা ভাল করার আশা প্রকাশ করেন। 

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কলেজের উপাধ্যক্ষ ডাঃ রেজাউল আলম জুয়েল। 

মন্তব্য