| প্রচ্ছদ

রিয়াল মাদ্রিদ যেন হাসপাতাল!

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৯ বার

‘চোটকে গুরুত্ব দেওয়ার কিছু নেই, খেলারই অংশ’- সান্তিয়াগো সোলারি মুখে যতই বলুন না কেন, ঘরের অবস্থায় কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে নিশ্চিতভাবেই। রিয়াল মাদ্রিদকে এখন হাসপাতাল বললেও ভুল হবে না সম্ভবত! স্কোয়াডের আট খেলোয়াড়কে চিকিৎসা দিতে হচ্ছে ক্লাব ডাক্তারদের।

৩১ ডিসেম্বর থেকে পাঁচ খেলোয়াড় পড়েছেন চোটে। মার্কো আসেনসিও পথ ধরে একের পর এক খেলোয়াড় ঢুকছেন ট্রিটমেন্ট রুমে। সান্তিয়াগো সোলালিকে তাই কঠিন পরীক্ষায় বসতে হয়েছে রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে রবিবারের ম্যাচের একাদশ সাজাতে। ভিনিসিয়াস জুনিয়র জ্বরে শুক্রবার অনুশীলন করতে না পারায় তাকেও দিতে হচ্ছে চিকিৎসা। এর মধ্যে আবার লুকাস ভাসকেসের নিষেধাজ্ঞা পরিস্থিতিতে আরও জটিল করে তুলেছে রিয়ালের জন্য।

মাদ্রিদের ক্লাবটির চোটের তালিকায় দলের সেরা সব খেলোয়াড়। গ্যারেথ বেল, টোনি ক্রোস, মার্কো আসেনসিও, থিবো কোর্তোয়ার সঙ্গে ইনজুরিতে মাঠের বাইরে আছেন মার্কোস ইয়োরেন্তে ও মারিয়ানো। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে রিয়ালের চলতি বছরের প্রথম ম্যাচে ইনজুরিতে পড়েছেন বেল। হ্যামস্ট্রিংয়ে টান পড়ায় দুই সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে গেছেন এই ওয়েলশ তারকা।

আসেনসিও চোটে পড়েছেন ক্লাব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে। বাম ঊরুর সমস্যায় এই স্প্যানিশ উইঙ্গারকে মাঠের বাইরে থাকতে হবে তিন সপ্তাহ। এ মাসের শেষ দিকে তার ফেরার প্রত্যাশা করছে রিয়াল। তাই নিশ্চিতভাবেই মিস করছেন তিনি রিয়াল বেতিস, লেহানেস ও সেভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ তিনটি।

রিয়ালের মাঝমাঠের দুর্বলতা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে টোনি ক্রোস না থাকায়। মাংশপেশীর চোটে ভোগা এই জার্মানের ফিরতে আরও তিন সপ্তাহ সময় লাগতে পারে। চোটের তালিকাটা আরও লম্বা করেছেন থিবো কোর্তোয়া। বছরের প্রথম ম্যাচ ড্রয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে হেরেই যায় রিয়াল। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে লিগের ওই ম্যাচে ২ গোল হজম করার পর দুই সপ্তাহের জন্য ছিটকে গেছেন বেলজিয়ান গোলরক্ষক। মার্কা

মন্তব্য