| প্রচ্ছদ

ফ্লাইটে বিপজ্জনক যাত্রীকে নিয়ন্ত্রণে ‘হাতকড়া’ রাখবে বিমান

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৭৯ বার। প্রকাশ: ১৪ জানুয়ারী ২০১৯ । আপডেট: ১৪ জানুয়ারী ২০১৯ ।

ফ্লাইটে বিপজ্জনক যাত্রীকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হাতকড়া ব্যবহার করবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। এতদিন এই সংস্থা বিপজ্জনক যাত্রীর বেলায় দড়ি ব্যবহার করতো। হাতকড়া ব্যবহার করতে বিমানকে সেফটি ম্যানুয়ালে পরিবর্তন আনতে হচ্ছে। শিগগিেই এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে হাতকড়া কিনবে বিমান।

যাত্রী ও কেবিনসহ সার্বিক নিরাপত্তার জন্য প্রতিটি এয়ারলাইনসের ফ্লাইটে নিজস্ব সেফটি ম্যানুয়াল থাকে। সেই অনুযায়ী পদক্ষেপ নেন পাইলট ও কেবিন ক্রু সদস্যরা।

ফ্লাইটে কোনও যাত্রী অসংলগ্ন আচরণ করলে কিংবা কেবিনে অন্য যাত্রীসহ ফ্লাইটের নিরাপত্তার জন্য কেউ হুমকি হয়ে উঠলে তাকে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখাই এতদিন বিমানের সেফটি ম্যানুয়ালে অন্তর্ভুক্ত ছিল। তবে এই পদ্ধতি পরিবর্তনের জন্য হাতকড়া সংযুক্ত করছে বিমান। তবে সেটি হবে বিশেষ ধরনের। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী লোহার হাতকড়া ব্যবহার করলেও বিমান প্লাস্টিকের হাতড়া আনবে। এটি অনেকটা ক্যাবল টাইয়ের মতো দেখতে।

 প্রসঙ্গে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ বলেন, ‘যাত্রীদের নিরাপত্তা আমাদের প্রধান দায়িত্ব। কোনও যাত্রী ফ্লাইট ও অন্য যাত্রীদের জন্য হুমকি হয়ে উঠলে তাকে বুঝিয়ে শান্ত রাখার চেষ্টা করেন কেবিন ক্রু সদস্যরা। এরপরও শান্ত করা না গেলে পাইলটের নির্দেশে সেফটি ম্যানুয়াল অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হয়। প্রয়োজনে যাত্রীকে বেঁধে রাখার বিধান রয়েছে। যাত্রীর সহিংস আচরণ ঠেকাতে এতদিন দড়ি ব্যবহার হতো। বিশ্বের অনেক এয়ারলাইনস এখন হাতকড়া ব্যবহার করে। বিমানও সব ফ্লাইটে বিশেষ ধরনের হাতকড়া রাখবে। শিগগিরই এটি কার্যকর হবে।’
জানা গেছে, গত ৪ জানুয়ারি লন্ডন থেকে সিলেটে আসার পথে এক মদ্যপ যাত্রী মাতাল হয়ে বিপজ্জনক আচরণ শুরু করেন। বিমানের বিজি ২০২ ফ্লাইটে অতিরিক্ত মদ্যপান করে ওঠেন সেই যাত্রী। তাকে তল্লাশি করে মদের বোতল পাওয়া যায়। লন্ডন থেকে বিমান ছাড়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ওই যাত্রী মাতলামি শুরু করেন। কেবিন ক্রু সদস্যদের সঙ্গে তার আচরণ ছিল অশোভন। কেবিন ক্রু ও অন্য যাত্রীরা থামানোর চেষ্টা করলে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন তিনি।
একপর্যায়ে ওই যাত্রী একজন ক্রুর আঙুলে কামড় দেন, প্লেট ছুঁড়ে মারেন। যাত্রীকে শান্ত করতে না পেরে পাইলটকে অবহিত করেন কেবিন ক্রু সদস্যরা। পাইলটের নির্দেশে তাকে দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলেন ফ্লাইট অ্যাটেনড্যান্টরা।
সিলেটে অবতরণের পর ওই যাত্রীকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে সোপর্দ করা হয়। এ ঘটনার একটি ভিডিও শেয়ার করেন একজন যাত্রী। ফেসবুকে এটি ভাইরাল হয়ে যায়। খবর বাংলা ট্রিবিউন

মন্তব্য