| প্রচ্ছদ

মেসিকে কোপায় দেখতে উন্মুখ ব্রাজিল কোচ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫৭ বার

আন্তর্জাতিক ফুটবলের প্রাচীনতম টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকার এবারের আসর বসবে ব্রাজিলে। দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের ২০১৯ আসরে লড়বে ১২টি দল। এই মহাদেশের ১০টি দেশের সঙ্গে এবার অতিথি হিসেবে থাকছেন এশিয়ার দুই দেশ জাপান ও কাতার।

বৃহস্পতিবার রাতে রিও ডি জেনিরোর কনসার্ট হলে হয়েছে ২০১৯ কোপা আমেরিকার গ্রুপপর্বের ড্র। ১৪ জুন সাও পাওলোতে ব্রাজিল-বলিভিয়া ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠবে টুর্নামেন্টের। ৭ জুলাই রিও’র ঐতিহাসিক মারাকানা স্টেডিয়ামে হবে ফাইনাল।

১৫ জুন কলম্বিয়ার বিপক্ষে বিগ ম্যাচ দিয়ে কোপা অভিযান শুরু করবে আর্জেন্টিনা। ড্র’র পর ঘুরেফিরে সবার মুখেই লিওনেল মেসির নাম। গেল বছর বিশ্বকাপের শেষ ষোলো থেকে বিদায়ের পর আকাশি-সাদা জার্সিতে আর দেখা যায়নি তাকে। ধারণা করা হচ্ছে, কোপার আগে ২৫ মার্চ ভেনিজুয়েলার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফিরবেন তিনি।

আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনিও মেসির ফেরার ব্যাপারে আশাবাদী, মার্চের ম্যাচের আগে লিওর সঙ্গে আমরা কথা বলব। আশা করি, কোপায় সে থাকবে। তার চেয়ে বড় কথা, আমরা তাকে সুখী দেখতে চাই।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের প্রাণভোমরাকে কোপায় দেখতে উন্মুখ ব্রাজিল কোচ তিতেও, আমি চাই মেসি এবং অন্য সব সেরা খেলোয়াড় ব্রাজিলে আসুক। সেরা হতে হলে সেরাদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করেই আপনাকে জিততে হবে। এজন্য নেইমার, মেসি, সানচেজ, সুয়ারেজ ও গুয়েরেরোর মতো সবাইকেই কোপায় দেখতে চাই আমি।

তুলনামূলক সহজ গ্রুপে পড়েছে ব্রাজিল। তবে ২০০৭ সালের পর আবার কোপার শিরোপা ঘরে তোলার চাপ থাকবে সেলেকাওদের ওপর। গেলবার পেরুর কাছে হেরে গ্রুপপর্ব থেকেই ছিটকে পড়েন নেইমাররা।

১৯৯৩ সালে সবশেষ কোপা জেতা আর্জেন্টিনার ওপর চাপটা আরও বেশি। গেল পাঁচ আসরে চারবার ফাইনালে হেরেছেন আলবিসেলেস্তিরা। শেষ দু’বার টাইব্রেকারে। সেই আক্ষেপ ঘুচিয়ে দেশের হয়ে বড় একটি শিরোপা জেতার সুযোগ নিশ্চয়ই হাতছাড়া করতে চাইবেন না মেসি।

মন্তব্য