| প্রচ্ছদ

হৃদরোগ প্রতিরোধ করে যেসব খাবার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৯ বার। প্রকাশ: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ । আপডেট: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ।

হৃদরোগ এখন আর শুধু বয়স্কদের সমস্যা নয়। বর্তমানে সব বয়সের মানুষই হৃদরোগে ভূগছে।বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জীবনযাপন পদ্ধতি ও খাদ্যাভাসের কারণেই বিশ্ব জুড়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। 

এছাড়া আরও কিছু কারণে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে। বিশেষ করে যারা উচ্চ কোলেস্টেরল, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, মানসিক চাপে ভূগছেন তাদের হৃদরোগের আশঙ্কা বেশি।দৈনন্দিন জীবনে কিছু কিছু খাবার আছে যেগুলো হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। যেমন-

১. টমেটোতে থাকা লাইসোপেন নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। এতে থাকা পটাশিয়াম উচ্চ রক্তচাপ কমায়, রক্ত চলাচল সহজ করে। 

২. আখরোট রক্তে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়।যাদের টাইপ টু ডায়াবেটিস আছে তারা নিয়মিত আখরোট খেলে হৃদরোগে ঝুঁকি কমে যায়। এতে থাকা ওমেগা থ্রি সমৃদ্ধ ফ্যাটি অ্যাসিড স্থূলতা, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ এবং মস্তিষ্কের রক্তনালী সংক্রান্ত জটিলতা কমায়।

৩. পালং শাকে ভিটামিন সি, বিটা ক্যারোটিন এবং অন্যান্য পুষ্টি উপাদান থাকে। এগুলো রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। এছাড়া এতে থাকা ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন বি সিক্স,বিটাইন উপাদান হৃদরোগ, স্ট্রোক এবং বয়সজনিত নানা জটিলতা কমায়।

৪. ওটসে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরী উপাদান এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ধমনী সংক্রান্ত সমস্যা প্রতিরোধ করে। নিয়মিত ওটস খেলে শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে যায়। ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে। 

৫. ষ্ট্রবেরী শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মানসিক চাপ কমায় এববং হৃদরোগজনিত জটিলতা প্রতিরোধ করে। 

৬. কমলা, লেবু, জাম্বুরার মতো সাইট্রাস জাতীয় ফল হৃৎপিণ্ডের জন্য দারুন উপকারী। এগুলো রক্তে জমাট বাঁধা প্রতিরোধ করে। 

৭. শিমের বীজ, মটরশুটি, মসুর ডালে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিণ থাকে। নিয়মিত এগুলো খেলে হৃদরোগের ঝুঁকি শতকরা ২০ ভাগ কমে যায়। 

৮. অ্যাভোকাডো ফলে প্রচুর পরিমাণে মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে যা হৃৎপিণ্ডের জন্য দারুন উপকারী। 

৯. প্রায় সব ধরনের বাদাম হৃৎপিণ্ড ভাল রাখতে দারুন কার্যকরী।নিয়মিত বাদাম খেলে রক্তে খারাপ কোলেস্টেরল কমে।

১০. নিয়মিত ডালিম খেলে হৃৎপিণ্ডে রক্ত চলাচল উন্নত হয়। এটি উচ্চ রক্তচাপও কমায়। সূত্র : এনডিটিভি   

মন্তব্য