| প্রচ্ছদ

বিজেপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে যা বললেন সৌরভ গাঙ্গুলী

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে বার। প্রকাশ: ০৩ মার্চ ২০২১ ১২:৩৩:৫৮ ।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সরগরম রাজনীতির মাঠ। তৃণমূল ও বিজেপিতে টালিউড ও ক্রীড়া জগতের তারকাদের যোগদান করানোর পালা চলছে। স্বাভাবিকভাবেই কলকাতার যুবরাজ খ্যাত সৌরভ গাঙ্গুলীর রাজনীতির মাঠে নামার বিষয়টি ফের আলোচনার শিরোনামে।

আগামী ৭ মার্চ ব্রিগেডে সেরা সমাবেশ করতে যাচ্ছে দেশটির ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। জল্পনা শুরু হয়েছে, ভারত দলের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী এই বিগ্রেডেই বিজেপিতে যোগদান করবেন।

জল্পনার মাত্রা বাড়িয়ে দেন বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য। 

ক্রিকেটীয় ভাষায় তিনি বলেন, ‘সৌরভ গাঙ্গুলী এতোদিন বিশ্রামে ছিলেন। শরীর ভালো হলে এই রোদে যদি নেট প্র্যাকটিসে আসেন, মানে ওয়ার্মআপে। মানুষ তাই-ই চাইছেন। তার যদি মনে হয়, আবহাওয়া ভালো মাঠে নামবেন।’

গুঞ্জন ওঠে, এবারের বিধানসভায় বিজেপির হয়ে বর্তমান মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্ধোপাধ্যায়ের সঙ্গে লড়াইয়ে নামবেন সৌরভ গাঙ্গুলী।

এমন গুঞ্জনের মধ্যেই মুখ খুললেন সৌরভ গাঙ্গুলী নিজেই।

তিনি জানালেন, গুঞ্জনটি গুজব ছাড়া আর কিছুই নয়। এই রকম কোনো সম্ভাবনা নেই। নির্বাচনে নামার খবরে নাকি উল্টো তার স্ত্রী ডোনা গাঙ্গুলী বিচলিত হয়ে পড়েছেন।

ভারতে সংবাদমাধ্যম ওয়ান ইন্ডিয়াকে সৌরভ বলেন, যা শুনেছেন সবটাই ভুল। রাজনীতিতে নামছি না। ব্রিগেডে যাচ্ছি না।

সৌরভের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত না সিদ্ধান্ত আসলেও পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি চাতক পাখির মতোই তাকিয়ে। কারণ মমতা বন্ধোপাধ্যায়ের সঙ্গে টক্কর দেওয়ার মতো জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব সৌরভ ছাড়া আর কাউকে মনে হচ্ছে না বিজেপির। জনপ্রিয়তার নিরিখে কলকাতায় সৌরভের ধারে কাছেও আর কেউ নেই। তাই আসছে বিগ্রেডে সৌরভ পদ্মশিবিরে পা রাখছেন, সেই আশায় বিজেপির নেতা-কর্মীরা।

সৌরভের ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, অতীতেও সৌরভের কাছে নরেন্দ্র মোদির পক্ষ থেকে প্রস্তাব এসেছিল। তবে বরাবরই সৌরভ সেই প্রস্তাব নাকচ করে এসেছেন। অন্যান্যবারের মতো এবারও একই পথে হাঁটলেন। মঙ্গলবার সৌরভ স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন, তিনি ব্রিগেডে যাচ্ছেন না। আপাতত বাড়িতে বিশ্রামে আছেন। সম্প্রতি হার্টে স্টেন্ট বসানোর পর চিকিৎসকরা যেভাবে বলেছেন, সেভাবেই চলছেন। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনেই আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামে ভারত-ইংল্যান্ড গোলাপি বলে টেস্ট ম্যাচ উদ্বোধনে যোগ দেননি তিনি।

মন্তব্য