| প্রচ্ছদ

টিস্যু পেপারে করা সেই চুক্তির বয়স ১৮ বছর হলো

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৯ বার। প্রকাশ: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ । আপডেট: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ।

২০০০ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে আর্জেন্টিনার ক্লাব নিওয়েলস ওল্ড বয়েজ থেকে বার্সেলোনায় নাম লেখান মেসি।

সুদূর আর্জেন্টিনা থেকে তৎকালীন বার্সেলোনা প্রেসিডেন্ট তুলে এনেছিলেন তাকে।

সেই কিশোরের ফুটবল নৈপুণ্যে বার্সেলোনা প্রেসিডেন্ট এতোটাই মুগ্ধ হয়েছিলেন যে, হাতের কাছে থাকা টিস্যু পেপারে প্রথম চুক্তিটা করে ফেলেন।

 

মেসিকে বার্সা যতটুকু দিয়েছেন, মেসি বার্সাকে তেমনই হৃদয় খুলে দিয়েছেন।

 

হরমোন জটিলতায় ভুগে মেসির ফুটবল ক্যারিয়ার যখন শেষ হতে চলেছিল তখন বার্সেলোনা ক্লাব কর্তৃপক্ষ তার পুরো চিকিৎসা ব্যয় বহন করে আবার তাকে খেলার মাঠে ফিরিয়ে আনে।

এরপর শুরু হয় লিওনেল মেসি যুগের। ইতিহাসে যোগ হয়েছে রেকর্ডের পর রেকর্ড।

মেসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, স্প্যানিশ কোপা ডেল রেসহ ৩২টি শিরোপা এনে দিয়েছেন বার্সাকে।

এক বছরে ৯১টি গোল করে এক বছরে সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সর্বোচ্চ আটটি হ্যাটট্রিকের মালিক তিনি। লা লিগায় এখন পর্যন্ত রেকর্ড গোল ৪০৪টি।

ক্লাব ও জাতীয় দলের জার্সি গায়ে মেসির মোট গোল সংখ্যা ৬৭০টি।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ২৬টি গোল করেছেন লিওনেল মেসি।

এভাবে মাঠে বল গড়াতে গড়াতে বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির পার করলেন ১৮টি বছর।

বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির বর্তমান চুক্তির মেয়াদ দুই বছর বাকি আছে। চুক্তি শেষে তার বয়স দাঁড়াবে ৩৪।

অবসরে যাওয়ার আগে শৈশবের ক্লাবে ফেরার ইচ্ছা অতীতে বেশ কয়েকবার জানিয়েছিলেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার।

তবে দলের সেরা তারকাকে ছাড়তে রাজি নন বার্তোমেউ। তার বিশ্বাস, নতুন চুক্তির করে ক্যারিয়ারের বাকিটা সময়ও মেসিকে বার্সেলোনায় রাখতে পারবেন।

বার্তোমেউ বলেন ‘লিও মেসি আমাদের সঙ্গেই থাকবে। সম্পর্কটা আজীবন থাকবে।’ ‘সে আমাদের বলেছে যে সে এখানে খেলে যেতে চায়। আমরা তাকে পাঁচ বছরের নতুন চুক্তির প্রস্তাব দিয়েছি। আমি আশা করি, আমরা চুক্তি নিয়ে আলোচনা চালিয়ে যাব।’

আর্জেন্টিনার তারকা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি বার্সেলোনার সঙ্গে নতুন চুক্তি করবেন এবং ক্যারিয়ারের বাকিটা সময় কাম্প নউয়েই থাকবেন বলে আত্মবিশ্বাসী কাতালান ক্লাবটির সভাপতি জোজেপ মারিয়া বার্তোমেউ।

মন্তব্য