| প্রচ্ছদ

বাসে আগুন, চালক আটক

নওগাঁর মান্দায় বিআরটিসি বাসের চাপায় তিন মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

নওগাঁ প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৭২ বার। প্রকাশ: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ । আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ।

নওগাঁর মান্দা উপজেলায় যাত্রীবাহী বিআরটিসি বাসের চাপায় মোটরসাইকেলের তিন আরোহী নিহত হয়েছেন। সোমবার বিকালে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের দেলুয়াবাড়ি গরুর হাট এলাকায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা হলেন, নওগাঁর মান্দা উপজেলার কুসুম্বা বারুইপাড়া গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে সেলিম হোসেন (৩৫), বারিল্যা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে শফিকুল ইসলাম (৪০) এবং রামনগর গ্রামের মৃত শুকুর আলীর ছেলে মোসলেম উদ্দিন (৪৫)। ওই দুর্ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ জনতা বিআরটিসি বাসে অগ্নিসংযোগ করে পুড়িয়ে দেয়।  
 

নওগাঁর মান্দা থানার ওসি মোজাফ্ফর হোসেন জানান, সোমবার বিকেলে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার ছাতড়া হাটে গরু কেনার উদ্দেশ্যে একটি মোটরসাইকেলে চড়ে তিন জন নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের দেলুয়াবাড়ি গরুহাটি মোড় হয়ে মহাসড়কের উঠছিল। এসময় নওগাঁ থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী বিআরটিসি’র (কুমিল্লা ব ১১-০০১৬) দ্রুতগামী বাস তাদের চাপা দেয়। এতে বাসের চাকার সঙ্গে মোটরসাইকেল আটকে গিয়ে ঘটনাস্থলেই সেলিম হোসেন নিহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় শফিকুল ইসলাম ও মোসলেম উদ্দিনকে উদ্ধার করে মান্দা উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় এলাকাবাসী। সেখানে তাদের অবস্থার অবনতি হলে শফিকুল ইসলাম ও মোসলেম উদ্দিনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে তাদের মৃত্যু ঘটে। 
 

তিনি আরো জানান, দুর্ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ জনতা বিআরটিসি বাসে অগ্নিসংযোগ করে পুড়িয়ে দেয়। বিআরটিসি বাসের চালক কার্তিক চন্দ্র ঘোষকে (৫৬) আটক করা হয়েছে। তিনি রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানার কুমারপাড়া এলাকার নারায়ন চন্দ্র ঘোষের ছেলে। তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য