| প্রচ্ছদ

অকালে টাক পড়ার যত কারণ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৮৭ বার। প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ । আপডেট: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ।

বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতিদিন যে পরিমাণ চুল ঝরে প্রায় সেই পরিমান চুলই আবার নতুন করে গজায়। কিন্তু ঠিক কত পরিমাণ চুল ঝরছে আর কত পরিমাণে নতুন চুল গজাচ্ছে তার হিসেব রাখা কারও পক্ষেই সম্ভব না।  বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রতিদিন ৫০ থেকে ১০০টি চুল ঝরে যাওয়াটা স্বাভাবিক। চুল ঝরে যাওয়া সাধারণত আবহাওয়ার ওপর নির্ভর করে। এছাড়া আরও কয়েকটি কারণে মাত্রাতিরিক্ত চুল ঝরে গিয়ে টাক পড়ে যেতে পারে। যেমন-

১. ভিটামিন-বি-এর অভাব হলে চুলের স্বাস্থ্য খারাপ হয়ে তা ঝরে যেতে পারে। যারা সবুজ শাকসবজি বা ফল কম খান তাদের মধ্যে এই সমস্যা বেশি দেখা যায়।

২. অ্যানিমিয়া বা রক্তস্বল্পতার সমস্যা থাকলেও অতিরিক্ত চুল ঝরে।সাধারণত নারীদের মধ্যে এই সমস্যা বেশি দেখা যায়। 

৩. অতিরিক্ত কাজের চাপ, মানসিক চাপের ফলে সঠিক পরিমাণে ঘুম হয় না। তখন চুল ঝরে যাওয়ার সমস্যাও বাড়তে থাকে।

৪. ব্যাকটেরিয়ার প্রভাবে সংক্রমণ বা অ্যালার্জির কারণে মাথার ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তখন চুলের গোড়া নরম আর দুর্বল হয়ে পড়ে। এতে চুলের ফলিকল নষ্ট হয়ে গিয়ে অকালেই টাক পড়ে যায়।

কারও যদি এক মাসেরও বেশি সময় ধরে মাত্রাতিরিক্ত চুল ঝরে তাহলে তার অবশ্যই বিশেষজ্ঞর পরামর্শ নেওয়া উচিত। সূত্র : জি নিউজ

মন্তব্য