| প্রচ্ছদ

বয়স ৩৯, ছক্কাও ৩৯, দারুণ ব্যাপার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১০৬ বার। প্রকাশ: ০৪ মার্চ ২০১৯ । আপডেট: ০৪ মার্চ ২০১৯ ।

দেশের মাটিতে সেরা সিরিজ খেলেছেন বলে জানিয়েছেন গেইল। উইন্ডিজের হয়ে দুটি টি-২০ বিশ্বকাপ জেতা ক্রিস গেইল পুরো ওয়ানডে সিরিজে ইংল্যান্ড বোলারদের কচুকাটা করেছেন। ছুঁয়েছেন ক্যারিয়ারে বেশ কিছু মালইফলক। দেশের মাটিতে শেষ ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ফেলেছেন ক্যারিবিয় বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান। ভক্তদের ঘরের মাঠে ব্যাট হাতে বিনোদন দিতে পারায় নিজেকে গর্বিত মনে করছেন তিনি।

ওয়ানডে সিরিজের চার ইনিংসে তিনি ৪২৪ রান তুলেছেন। বড় বড় দুই সেঞ্চুরি এবং দুই ফিফটি হাঁকিয়েছেন তিনি। দেখিয়েছেন গেইলময় ব্যাটিং তান্ডব। ক্যারিয়ারে পাঁচশ ছক্কার মাইলফলক ছাড়িয়েছেন। ওয়ানডেতে তিনশ' ছক্কার মাইলফলক ছুঁয়েছেন। দ্বিতীয় ক্যারিবিয় হিসেবে দশ হাজার রান করেছেন। এক সিরিজে রেকর্ড ৩৯টি ছক্কা হাকিয়েছেন। দেশের মাটিতে শেষ সিরিজটা রাজকীয় হয়েছে তার। তবে গেইলের সামান্য আক্ষেপ আছে। শেষ ম্যাচটা যদি জ্যামাইকায় হতো।

গেইল বলেন, 'ক্যারিবিয় দর্শকদের আনন্দ দেওয়া এবং সিরিজ সেরা হওয়া গর্বের ব্যাপার। উইন্ডিজই নাম্বার ওয়ান। ক্যারিবিয়দের সামনে ক্রিকেটার হিসেবে এটা সেরা অর্জন। দেশের মাটিতে এটা আমার শেষ ম্যাচ। সুতরাং আমি দারুণ এক মুহূর্ত দিতে পেরেছি দর্শকদের। সিরিজ জুড়ে দুই দলই দুর্দান্ত ছিল। শেষ ম্যাচটা জামাইকায় হলে আরও ভালো হতো। তবে এখানেও (সেন্ট লুসিয়া) দর্শকদের ভিড় ছিল অসাধারণ।'

ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-২০ লিগ খেলতে বছরে হাজার-হাজার মাইল পাড়ি দেন ক্রিস গেইল। তবে কখনো খুব একটা ফর্ম পড়তে দেখা যায়নি। শুধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) গেইল চোখে বাধার মতো বিবর্ণ ছিলেন। সেটা দুর্দান্ত এক ফর্মে ভুলিয়ে দেখিয়েছেন গেইল, 'টি-২০ ক্রিকেটে ভালো রান পায়নি। তবে যখন আপনি রান করার সুযোগ পাবেন, আপনাকে অনেক বেশি রান করতে হবে। ঘরের মাঠে খেলা এটা আমার সেরা সিরিজ।'

বিপিএলে রান না পাওয়া গেইল ইংল্যান্ড বোলারদের বিপক্ষে দারুণ সফল হয়েছেন। হুট করে গেইলের এমন দুর্দান্ত ফর্মে অবাক হয়েছেন অনেকে। তবে গেইল নন, 'আমি মোটেও বিস্মিয় হয়নি। কিংবা ছক্কার সংখ্যায়ও না। ছক্কা এমনিতে আসে। স্বাভাবিকভাবে। সত্যি বলতে টি-২০ ক্রিকেটে আমি অনেক ছক্কা মারি। কিন্তু ওয়ানডেতে এই প্রথম। ৩৯ বছর বয়সে ৩৯ ছক্কা। এটা দারুণ অর্জন।'

মন্তব্য