| প্রচ্ছদ

বগুড়ার শাজাহানপুরে দরিদ্র মেধাবীদের পাশে দাঁড়াল একদল যুবক

মুজাহিদুল ইসলাম জাহিদ
পঠিত হয়েছে ৬৯ বার। প্রকাশ: ০৯ মার্চ ২০১৯ । আপডেট: ০৯ মার্চ ২০১৯ ।

এসএসসি তে গোল্ডেন ৫ পায় ইমরান হোসেন। গ্রামে মেধাবী ছাত্র হিসেবে তার পরিচিতিও ছিল। কিন্তু টাকার অভাবে তার লেখাপড়া থমকে যায়। সে সময় কেউ তাকে সহযোগিতা করেনি। এমনকি কেউ কেউ আশ্বাস দিয়ে নিজের প্রয়োজনে ব্যাবহার করেছে। মসজিদ ঝাড়ুদিয়ে মাসে ৫০০ টাকা পেত ইমরান। সে টাকায় বই-খাতা কিনত এবং পরিবারেরও সহযোগিতা করত। এক পর্যায়ে লেখাপড়া ছেড়েদিয়ে নানা ধরনের কাজ করতে হয়েছে। পরে অবশ্য কিছু টিওশনি পেয়ে নতুন করে লেখাপড়া করার সিদ্ধান্ত নেয়। এখন লেখাপড়ার পাশাপাশি এক প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করছে ইমরান। তার মত আর কোন শিক্ষার্থীর যেন এমন পরিস্থিতিতে না পরে এমন স্বপ্ন ইমরানের। তার এমন দুঃসহ ঘটনায় অনুতপ্ত হয়ে এলাকার কিছু যুবক একত্রিত হয়ে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের পাশে থাকার আঙ্গিকার করে এবং তারা আসমা ফাউন্ডেশন নামে এক বেসরকারি সেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রতিষ্ঠা করে। এতে স্থানীয় যুব সমাজ ও সাধারণ মানুষ একত্ততা প্রকাশ করেছে।   
এই সংগঠনের ব্যানারে বগুড়া শাহজাহানপুরের ফুলকোট গ্রামে তারা ৩০ জন দরিদ্র মেধাবীকে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করেছে। এতে ৪র্থ শ্রেণী থেকে ৯ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের শিক্ষাউপকরন ও আর্থিক সহযোগীতা করা হয়। বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান শুক্রবার সকাল ১০টায় ফুলকোট নবোদয় কারিগরী উচ্চবিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রভাষক সোহরাব হোসেন সান্নু, প্রধান আলোচক- মিনারা বেগম মিনা ও জাহিদুর রহমান উজ্জল।
 

মন্তব্য