| প্রচ্ছদ

দুর্নীতি দমন কমিশন স্বাধীন:নওগাঁয় দুদক কমিশনার

নওগাঁ প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৭২ বার। প্রকাশ: ২৭ মার্চ ২০১৯ । আপডেট: ২৭ মার্চ ২০১৯ ।

দুর্নীতি দমন কমিশনকে স্বাধীন বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কমিশনার ড. মো: মোজাম্মেল হক খান। তিনি বলেন, রাজনৈতীক সদিচ্ছা ছাড়া যত গুরুত্বপূর্ন বা নীতি আর্দশের কাজই হোক না কেন তা সমাধান করা সম্ভব নয়। বর্তমান সরকার নির্বাচনের আগে ঘোষনা করেছিলেন সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে তাদের অবস্থান থাকবে। সরকার গঠনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বারবার বলেছেন দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। এজন্য দুর্নীতির বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে কোমলমতি ছাত্রদের আমরা মিছিলে দাঁড় করানোর চেষ্টা করে যাচ্ছি। এজন্য রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগীতাসহ বিভিন্ন আয়োজন করা হয়ে থাকে। বুধবার দুপুরে নওগাঁর সাপাহার উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা অডিটোরিয়ামে গণশুনানিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।


কমিশনার আরো বলেন, দুর্নীতিকে জানতে হলে আমাদের ষষ্ঠ ইন্দ্রীয় দিয়ে বুঝতে হবে এবং তৃতীয় নয়ন দিকে দেখতে হবে। অদৃশ্য বিষয়গুলো যদি আমাদের কাছে স্পষ্ট হয় তবেই তা নির্মূল করার পথ সহজ হবে। দুর্নীতি দমন শুধুমাত্র একটি শব্দ না। এটি একটি কঠিন কার্যক্রম। এজন্য যদি দুদক একা কাজ করে তাহলে নির্মূল সম্ভব না। সকলকে একত্র হয়ে কাজ করতে হবে এবং সহযোগীতা করতে হবে। গণশুনানিতে হাজির হওয়ায় উপজেলাবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।


জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদকের) পরিচালক (প্রতিরোধ) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, রাজশাহীয় বিভাগীয় দুদকের পরিচালক মোহাম্মদ মোরশেদ আলম, উপ-পরিচালক বেনজির আহম্মদ, নওগাঁ পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন পিপিএম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সামিউল ইসলাম, সাপাহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কল্যাণ চৌধূরী, অফিসার ইনচার্জ সামসুল আলম শাহ, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব নুরুল হক মাস্টার প্রমূখ।


এসময় উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারী এবং সচেতন নাগরিক উপস্থিত ছিলেন। পরে উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরে মোট ২৭ টি অভিযোগের বিষয়ে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়। গণশুনানি সবচেয়ে বেশি অভিযোগ রয়েছে উপজেলার ভূমি অফিসে।

মন্তব্য