| প্রচ্ছদ

ধুনটে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মুদি দোকানিকে কোপানোর অভিযোগে

ধুনট উপজেলা (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ২৩৫ বার। প্রকাশ: ৩০ মার্চ ২০১৯ । আপডেট: ৩০ মার্চ ২০১৯ ।

বগুড়ার ধুনটে ছাত্রলীগ নেতা ও তার সহযোগীরা এক মুদি দোকানিকে রাম দা দিয়ে কুপিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বরুণ মণ্ডল নামে সেই দোকানি বর্তমানে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 
ওই ঘটনায় আহত বরুণ মণ্ডলের স্ত্রী রত্না খাতুন ধুনট উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ স্বপনসহ তার ৮ সহযোগীর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে তারা অভিযোগটি তদন্ত করে দেখছে। তবে ছাত্রলীগ নেতা স্বপন তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
রত্না খাতুন জানান, তার স্বামী বরুন মণ্ডল গত বুধবার স্থানীয় গোসাইবাড়ী হাটে মুদিখানার মালামাল ক্রয় করতে যান। বাজারের মরিচ পট্টি কলমের দোকানে সামনে ধুনট উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আবু সালেহ স্বপন ও তার সহযোগীরা পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে বরুন ম-লকে রাম দা দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতায় রতœা  তার আহত স্বামীকে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান। সেখানে  বরুনের অবস্থার অবণতি হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন।
ওই ঘটনার দুইদিন পর শুক্রবার রাতে রত্না খাতুন ধুনট থানায় গিয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ স্বপন এবং তার ৮ সহযোগীর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। ছাত্রলীগ নেতা স্বপন দাবি করেছেন, তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘মুদি দোকানী বরুণ মণ্ডলকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনার সঙ্গে আমি জড়িত নই।’
ধুনট থানার ওসি ইসমাইল হোসেন জানান, বরুণ মণ্ডলের স্ত্রী থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগটি তদন্ত করা হচ্ছে। 

মন্তব্য