| প্রচ্ছদ

বদলে যাচ্ছে টেস্ট ক্রিকেট, চার-ছক্কার পরিবর্তে ৮-১২

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৮ বার। প্রকাশ: ০২ এপ্রিল ২০১৯ । আপডেট: ০২ এপ্রিল ২০১৯ ।

টি-টোয়েন্টির বদৌলতে ক্রিকেটে ঘটে গেছে বিপ্লব। হুমকির মুখে পড়েছে টেস্ট ক্রিকেট। তবে বসে নেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। অভিজাত সংস্করণটি ধরে রাখতে মরিয়া সংস্থা। টেস্টকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে আটটি বৈপ্লবিক নতুন উদ্যোগ নিচ্ছে আইসিসি।

১. টেস্টেও নাম ও জার্সি নম্বর

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মাঠে খেলা খেলোয়াড়দের রঙিন জার্সির পেছনে নাম ও নম্বর থাকে। এবার টেস্টেও ক্রিকেটারদের জার্সিতে তা দেখা যাবে। সামনে সীমিত ওভারের বিশ্বকাপ। এটি শেষ হলে শুরু হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মেগা আসর। এতেই তা দেখা যেতে পারে। চমক হিসেবে ক্রিকেটারদের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টের উল্লেখ থাকবে।

২. বদলে যাচ্ছে টস সিস্টেম

টেস্ট ক্রিকেটের সঙ্গে তরুণ প্রজন্মকে সংযুক্ত করতে অভিনব উদ্যোগ নিচ্ছে আইসিসি। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে টেস্টের টস সিস্টেমও পাল্টে যাবে। এবার সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে ভোটের মাধ্যমে কোন দল প্রথমে ব্যাটিং করবে বা বোলিং করবে, দর্শকরাই তা বেছে নেবেন। ম্যাচের আগে নির্দিষ্ট কয়েক ঘণ্টা ভোটের ব্যবস্থা করা হবে। টুইট করে টস নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন ভক্তরাই।

৩. শর্টস পরে টেস্ট খেলা

সামনে শর্টস পরে টেস্ট খেলতে পারবেন ক্রিকেটাররা। মূলত আবহাওয়ার কথা মাথায় রেখে এ সিদ্ধান্ত নিচ্ছে আইসিসি। কার্যকর হলে তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রিতে পৌঁছলে গরমের কারণে ক্রিকেটাররা শর্টস পরে খেলতে পারবেন।

৪. সম্প্রচারে বৈপ্লবিক পরিবর্তন

প্রযুক্তির সাহায্যে খেলা চলাকালীনই স্লিপের পেছনে ভার্চুয়ালি পৌঁছে যাবেন ধারাভাষ্যকাররা। টিভি দর্শক বাড়াতেই এ উদ্যোগ নিতে পারে আইসিসি।

৫. এক বলে ২ উইকেট

ক্যাচ ধরার পর চাইলে ফিল্ডার উইকেটের অন্যদিকে ব্যাটসম্যানকে রানআউট করতে পারবেন। ফলে এক বলে ২ উইকেট পাবে ফিল্ডিং করা দল। টেস্ট ক্রিকেটের জৌলুস বাড়াতে এ পথে হাঁটছে আইসিসি।

৬. বদলে যাচ্ছে ডট-নো বলের নাম

আগামীতে টেস্ট ক্রিকেটে নো বলের নতুন নাম হতে পারে ‘ফল্টস’। আর বল ডট হলে সেটিকে ডাকা হবে ‘অ্যাসেস’। টেস্ট ক্রিকেটের হৃত গৌরব ফেরাতে এ উদ্যোগ নিতে পারে ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা।

৭. চার-ছয়ের বদলে ৮-১২

বাউন্ডারি হলে আমরা সেটিকে চার এবং ওভার বাউন্ডারি হলে ছক্কা হিসেবে ধরি। এবার তাতেও পরিবর্তন আসছে। দিবারাত্রির টেস্ট ম্যাচে রাতের সেশন চার (বাউন্ডারি) হলে সেটি আট রান হিসেবে ধরা হবে। ঠিক তেমনি ছয় (ছক্কা) হলে সেটিকে ১২ রান কাউন্ট করা হবে।

৮. টাই নিয়ম

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আসরে দুই দলের মধ্যে টাই হলে অ্যাওয়ে সিরিজের রানের ভিত্তিতে স্থান নির্ধারণ করা হবে।

উল্লেখ্য, এসব নিয়ম নিয়ে ধন্দে পড়ার কোনো কারণ নেই। গেল রোববার ছিল এপ্রিল ফুল!!! সেদিনই নিজেদের অফিসিয়াল টুইটারে এসব নিয়মের কথা জানিয়েছে আইসিসি।

ক্রিকেটপ্রেমীরা মনে করতে পারেন এপ্রিল ফুলের দিনে মজা করে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। তবে এসব নিয়ে ঠিকই ভাবছেন কর্তারা।

মন্তব্য