| প্রচ্ছদ

জমি নিয়ে বিরোধ

মান্দায় প্রতিপক্ষের আগুনে বসতবাড়ি ভস্মীভূতঃ আহত ৩, গ্রেফতার ৪

নওগাঁ প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৮৫ বার। প্রকাশ: ০৬ এপ্রিল ২০১৯ । আপডেট: ০৬ এপ্রিল ২০১৯ ।

নওগাঁর মান্দায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে ৫ পরিবারের বসতবাড়িসহ ৭টি খড়ের পালা আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এসময় বাড়িঘরে হামলা, ভাঙ্চুর ও লুটপাট চালিয়েছে হামলাকারীরা। বাধা দেয়ায় তাদের মারপিটে আহত হয়েছেন ওই পরিবারের দুই নারীসহ তিনজন। শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের জাফরাবাদ পূর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 


ভুক্তভোগী লবির উদ্দিনের ছেলে আয়নাল হক জানান, জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে জাফরাবাদ গ্রামের মোসলেম উদ্দিন গংদের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের বিরোধ চলে আসছিল। জের ধরে শুক্রবার রাত ১টার দিকে পুলিশ আমার বাবা লবির উদ্দিনসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। এর কিছু পরেই মোসলেম উদ্দিন, মোফাজ্জল হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, ডালিম, সফির উদ্দিনসহ ২৫-৩০ জনের সংঘবদ্ধ একটি দল লাঠিসোটা নিয়ে আমাদের বাড়িঘরে হামলা চালায়। 
তিনি আরও বলেন, হামলাকারীরা আমাদের ৭টি খড়ের পালাসহ বসতবাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে ধান, চালসহ যাবতীয় আসবাবপত্র পুড়ে ভস্মীভূত হয়েছে। হামলাকারীরা টাকা-পয়সা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যায় বলেও অভিযোগ করেন তিনি। এতে তাদের অন্তত: ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। 


ভুক্তভোগী তাজিম উদ্দিনের স্ত্রী নাজমা বিবি জানান, হামলাকারীরা গভীর রাতে বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ হামলা, ভাঙ্চুর ও লুটপাট চালায়। তাদের মারপিটে লবির উদ্দিনের স্ত্রী জোসনা বিবি, শাশুড়ি তফিজান বিবি ও প্রতিবেশি মজিবর রহমান আহত হয়েছেন। আহতদের মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন, হামলাকারীরা চলে যাবার সময় লবির উদ্দিনের দুইটি গরু ও আব্দুল আলিমের ৫টি ছাগল লুট করে নিয়ে যায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানান, প্রতিপক্ষ মোসলেম উদ্দিন শুক্রবার দুপুরে তার বাড়িতে মায়ের মিলাদের নামে ভুরিভোজের আয়োজন করে। ওই অনুষ্ঠানে অনেক অপরিচিত ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন। দুপুরে খাওয়া-দাওয়ার পরেও আগন্তক ব্যক্তিরা রাতে মোসলেম উদ্দিনের বাড়িতে থেকে লবির উদ্দিন গংদের বাড়িতে হামলা, ভাঙ্চুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগে অংশ নেয় বলেও দাবি করেন তারা। 


মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাফফর হোসেন জানান, সংবাদ পেয়ে ফোর্সসহ রাতেই আমি ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করি। এসময় অভিযান চালিয়ে মকছেদ আলী, মামুনুর রশিদ, শহিদুল ইসলাম ও জাহাঙ্গীল আলমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওসি আরও বলেন, ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। 


ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন মান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার খন্দকার মুশফিকুর রহমান। তিনি বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

মন্তব্য