| প্রচ্ছদ

গ্রিস যাচ্ছেন ইলিয়াস কাঞ্চন

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১০৬ বার। প্রকাশ: ০৮ এপ্রিল ২০১৯ । আপডেট: ০৮ এপ্রিল ২০১৯ ।

ষষ্ঠ গ্লোবাল মিটিং অন রোড সেফটি সেমিনারে অংশ নিতে (৯ এপ্রিল রাত ১টায়) রাতে গ্রিসের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ছাড়ছেন নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। এ সেমিনারটির আয়োজন করেছে গ্লোবাল অ্যালায়েন্স অব এনজিওস ফর রোড সেফটি। যারা জাতিসংঘের সঙ্গে মিলে সারা বিশ্বে সড়ক দুর্ঘটনা কিভাবে কমিয়ে আনা যায় সেই লক্ষ্যেই কাজ করছে। খবর যুগান্তর অনলাইন 

২০২০ সালের মধ্যে সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনার জন্য জাতিসংঘ কর্তৃক যে ডিকেড ঘোষিত আছে তা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে এই সংস্থাটি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সড়ক দুর্ঘটনা বিষয়ক কাজ করা বিভিন্ন সংগঠন নিয়ে এই সংস্থাটি গঠিত। সংস্থাটির সঙ্গে বৃটেনের রয়েল ফ্যামিলির সদস্যও যুক্ত আছেন। এবারের সেমিনারে রয়েল ফ্যামিলির একজন সদস্যও যোগ দিবেন।

ইলিয়াস কাঞ্চন জানান, ২০২০ সালের মধ্যে সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনার জন্য জাতিসংঘ কর্তৃক ডিকেড শেষ হতে যাচ্ছে। ২০১১ সালে ঘোষিত ২০২০ সাল তথা এই দশ বছরকে টার্গেট করে ডিকেড ঘোষিত হয়। ইতিমধ্যেই ঘোষিত ডিকেডের ৯ বছর চলছে। ২০২০ সালে এর মেয়াদ শেষ হবে। এই সময়ের মধ্যে সারা বিশ্বে সড়ক দুর্ঘটনা কতটুকু কমিয়ে আনা গেছে, যদি না কমে থাকে কেন কমেনি, কোন কোন ক্ষেত্রে অগ্রগতি আছে, আর কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য কি কি করা দরকার তা আলোচনা হবে এ সেমিনারে।

তিনি বলেন, সেইসাথে কিভাবে এই সময়ের মধ্যে বাকী কাজ বা যে প্রস্তাবনা আসবে তা বাস্তবায়ন করা যায় তারও একটি কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করা হবে।

ইলিয়াস কাঞ্চন সেমিনারে বাংলাদেশের সড়ক দুর্ঘটনার চিত্র, কারণ, প্রতিকার, অগ্রগতি, করণীয়, সুপারিশমালাসহ বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বক্তব্য রাখবেন। তিনি এই সেমিনারে সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনার লক্ষ্যে গত ২৫ বছরের কর্মকাণ্ডও তুলে ধরবেন। তার সঙ্গে সফরসঙ্গী হিসেবে আছেন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মিরাজুল মইন জয় ও নিসচার প্রশিক্ষণ সম্পাদক ফারিহা ফাতেহ।

জয় এবং ফারিহা উভয়ই এই দুই বছরে গ্লোবাল অ্যালায়েন্স অব এনজিওস ফর রোড সেফটি প্রণীত দিক নির্দেশনার আলোকে বাংলাদেশে কাজ করবেন বলে জানা গেছে।

মন্তব্য