| প্রচ্ছদ

তামিম-মুশফিকদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১১৪ বার। প্রকাশ: ২২ এপ্রিল ২০১৯ । আপডেট: ২২ এপ্রিল ২০১৯ ।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে ব্যস্ত জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের বড় একটা অংশ। আইপিএলে খেলার জন্য ভারতে রয়ে গেছেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ক্যাম্পের প্রথম দিনে ছিলেন মোটে পাঁচ জন। তামিম ইকবাল ছাড়া তাদের সবাই লড়ছেন চোট কাটিয়ে মাঠে ফিরতে।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রধান কোচ স্টিভ রোডসের তত্ত্বাবধানে সোমবার শুরু হওয়া ক্যাম্পে বাঁহাতি ওপেনারের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মুশফিুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, রুবেল হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমান। কোচ ও সতীর্থদের সঙ্গে দেখা করে গেছেন সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন ও ইয়াসির আলী চৌধুরী। খবর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম 

সুনীল জোশি ছাড়া কোচিং স্টাফের বাকি সবাই উপস্থিত ছিলেন প্রথম দিনের অনুশীলনে।

তবে বিশ্বকাপ প্রস্তুতির শুরুতে এতো কম ক্রিকেটার, যেন মানতেই কষ্ট হচ্ছিল মাহমুদউল্লাহর। আরও কটা দিন অনুশীলনে থাকবেন ৫-৬ জন ক্রিকেটার। মঙ্গলবার হতে যাওয়া লিগের শেষ রাউন্ডে খেলার পর দুই দিন বিশ্রাম পাবেন মাশরাফি বিন মুর্তজা-মোসাদ্দেক হোসেনরা। ২৭ এপ্রিল থেকে অনুশীলনে পাওয়া যাবে প্রায় সবাইকে।

সকাল সাড়ে নয়টায় শুরু হয় অনুশীলন। শুরুতেই মাঠে কয়েকটা চক্কর দেন মুশফিক। খানিক পর একই কাজ করেন মুস্তাফিজ। এক প্রান্তে কিছুক্ষণ দৌড়ান মাহমুদউল্লাহ ও রুবেল।

সবার আগে সেন্টার উইকেটে যান তামিম ও মুশফিক। তামিম ব্যাট করেন ৪০ মিনিটের মতো, মুশফিক ঘণ্টা খানেক। পরে এক নেটে ঘণ্টা খানেক ব্যাটিং করেন মাহমুদউল্লাহ। অন্য নেটে ভাগাভাগি করে ব্যাটিং করেন মুস্তাফিজ-রুবেল।

পাঁজরের চোট থেকে সেরে উঠছেন মুশফিক। মাহমুদউল্লাহর চোট কাঁধে। তার জন্য মূল চ্যালেঞ্জ হবে বোলিং ও ফিল্ডিং। এই দুই অনুশীলন এখনও শুরু করেননি জাতীয় দলের নির্ভরযোগ্য এই ব্যাটসম্যান।

সাইড স্ট্রেইন থেকে সেরে উঠছেন অভিজ্ঞ পেসার রুবেল। পায়ের চোটে ভুগছেন বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজ। দুই জনের কেউই বোলিং করেননি এদিন।    

প্রথম দিন যতটুকু অনুশীলন হয়েছে তাতে খুশি পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।

“আজ অনুশীলনের প্রথম দিন ছিল। ছেলেদের অনেকেই এখনও প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলছে, এটা দলের জন্য ভালো।”

“যারা খেলায় নেই তারা আজ ক্যাম্পে ছিল। চোট নিয়ে কিছুটা দুর্ভাবনা আছে। যারা এর মধ্যে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পায়নি তারা আজকে নেটে অনেকটা সময় ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেল। এটা ভালো শুরু। তবে আমার মূল চিন্তা চোট পাওয়া বোলারদের নিয়ে। ওদের ফিট করে তুলতে হবে।”

আইপিএলে ম্যাচ খেলার সুযোগ না পাওয়ায় ক্যাম্পের শুরু থেকে থাকার জন্য সাকিবকে ফিরতে চিঠি দিয়েছিল বিসিবি। ওয়ালশ জানান, খেলার সুযোগ পেলে সাকিব ভারতে থাকলে তার কোনো আপত্তি নেই। চোট থেকে সেরে ওঠার পর সাকিবের জন্য বেশি জরুরি ম্যাচ খেলা। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের জনি বেয়ারস্টো চলে যাওয়ায় সাকিবের খেলার সম্ভাবনা বেড়েছে। তাই একটু অপেক্ষায় দোষের কিছু দেখেন না ওয়ালশ।

“সাকিব ভারতে আছে, ওর আইপিএল দলের সঙ্গে আছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ও বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পায়নি। আমরা এখনও আশাবাদী ও কিছু ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে।”

“সাকিবের জন্য ম্যাচ ফিটনেস এখন বেশি জরুরি। ও চোট থেকে ফিরেছে। ব্যক্তিগতভাবে বিশ্বকাপের আগে আরও ধারালো হতে আমি চাইবো সাকিব সেখানে কিছু ম্যাচ খেলুক। এরপর আয়ারল্যান্ডে যত দ্রুত সম্ভব ওকে দলের সঙ্গে পেতে চাইবো আমরা।”

২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে বাংলাদেশ।

মন্তব্য