| প্রচ্ছদ

পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের সঙ্গে স্ত্রীদের থাকা নিয়ে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৯৯ বার। প্রকাশ: ২৫ মে ২০১৯ ।

বিশ্বকাপ চলাকালীন স্ত্রী ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে রাখতে পারবেন না পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। শুক্রবার তা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিল দেশটির ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তবে সেই সিদ্ধান্ত থেকে এবার সরে এসেছে তারা। ২৪ ঘণ্টা না গড়াতেই জানিয়ে দিল, ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের পর থেকেই স্ত্রী-সন্তান-পরিজনদের সঙ্গে নিয়ে থাকতে পারবেন সরফরাজরা।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) বরাত দিয়ে দেশটির শীর্ষস্থানীয় সংবাদ মাধ্যম ডন বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। আগামী ১৬ জুন ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে লড়বে ভারত-পাকিস্তান। ওই মহারণের পরই পরিবার নিয়ে থাকতে পারবেন ক্রিকেটাররা।

এর আগে বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে পাক ক্রিকেটারদের স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে রাখার ক্ষেত্রে কঠোর পদক্ষেপ নেয় পিসিবি। সবার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। আসরজুড়ে খেলার প্রতি মনোযোগী রাখতে এমন সিদ্ধান্ত নেয় বোর্ড। কর্তৃপক্ষ ধারণা করেছিলেন, পরিবারের উপস্থিতি খেলোয়াড়দের স্বাভাবিক রুটিনে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে।

তবে বিশেষ বিবেচনায় অনুমতি দেয়া হয়েছিল হারিস সোহেল ও আসিফ আলিকে। সদ্য দুই বছরের কন্যাকে হারিয়েছেন আসিফ। তাই তাকে পরিবার নিয়ে থাকার সুযোগ করে দেয় পিসিবি। হারিসের বিষয়টিও ছিল প্রায় একই। পারিবারিক সমস্যার কারণে তার প্রতি শিথিল হয় বোর্ড।

তবে একদিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত বদলে ফেলল পিসিবি। পুরো বিশ্বকাপের আসর নয়, ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের পর পরিবার-পরিজন সঙ্গে রাখতে পারবেন হাফিজ-মালিকরা। সবশেষ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে প্রিয়জনদের সঙ্গে রাখার অনুমতি ছিল তাদের।

৩১ মে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে মিশন শুরু করবে পাকিস্তান। তবে মূল মঞ্চে চূড়ান্ত লড়াইয়ে নামার আগে ধাক্কা খেয়েছে সরফরাজ বাহিনী। ইংল্যান্ডের সঙ্গে সিরিজ হারার পর প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচেও আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৩ উইকেটে হেরেছে সরফরাজরা। রোববার বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে মুখোমুখি হবেন ইমরানের উত্তরসূরীরা।

মন্তব্য