| প্রচ্ছদ

বৃদ্ধাশ্রমে খাবার নিয়ে গেলেন পূর্ণিমা

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৫ বার

সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয় এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। প্রায়ই হাস্যরসে ভরপুর ছবি, ভিডিও দিয়ে ভক্ত-অনুরাগীদের মন জুগিয়ে যাচ্ছেন।

তার পোস্ট মানেই ভাইরাল কিছু। তবে সম্প্রতি মজার কোনো ছবি বা ভিডিও আপলোড না করে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এমন সব ছবি ছেড়েছেন যে কারণে বেশ প্রশংসিত হচ্ছেন পূর্ণিমা।

আজ শনিবার চিত্রনায়িকা ফেসবুক পোস্টে দেখা গেছে, কোনো এক বৃদ্ধাশ্রমে বৃদ্ধাদের সঙ্গে হাস্যজ্বল পূর্ণিমা। তাকে পেয়ে অসহায় বৃদ্ধারাও খুশিতে আত্মহারা। যে যেভাবে পারছেন পূর্ণিমাকে নিজের সন্তানের মতো আপন করে নিচ্ছেন।

পূর্ণিমাও তাদের সঙ্গে খোশ গল্পে মেতেছেন। এ সবই প্রকাশ পেয়েছে ফেসবুকে পূর্ণিমার আপলোড করা ২৫টি ছবিতে।

 

জানা গেছে, সম্প্রতি রাজধানীর উত্তরখান ইউনিয়ন পরিষদের মৈনারটেক এলাকায় মৈনারটেক এলাকায় অসহায় ও দুস্থ নারীদের জন্য নির্মিত ‘আপন নিবাস’ নামের একটি বৃদ্ধাশ্রমে গিয়েছিলেন পূর্ণিমা।

ওই আশ্রমে প্রায় ৫০ জন নারী বসবাস করছেন। তাদের কারও কারও শারীরিক সামর্থ্য নেই। আশ্রমই তাদের ভরসা।

সেই আশ্রমে নিজ হাতে খাবার রান্না করে নিয়ে গিয়েছিলেন পূর্ণিমা। তাদের সঙ্গে দারুণ কিছু সময় কাটিয়ে তাদের জন্য খাবার পরিবেশন করেন তিনি।

খাওয়ার পর্ব শেষে পূর্ণিমা সুর মিলিয়ে গানও গেয়েছেন বৃদ্ধাদের সঙ্গে।

এ বিষয়ে পূর্ণিমা বলেন, ‘বিষয়টি খুব আনন্দের ও আর তৃপ্তিদায়ক। এ আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না। তাদের সঙ্গে সময়টা কাটিয়ে এবং একবেলা খাওয়াতে পেরে আমার নিজের মনের মধ্যে একটা শান্তি অনুভব করছি।’

তিনি বলেন, এটা একটা সামাজিক দায়বদ্ধতা। এভাবে অসহায় বৃদ্ধাদের সময় দেয়া উচিত বলে মনে করি।

এদিকে পূর্ণিমার এমন কাজকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তার ভক্ত-অনুরাগীরা।

শুভাকাঙ্ক্ষীদের অনেকে পূর্ণিমার ভূয়সী প্রশংসা করে লিখেছেন, মানুষ মানুষের জন্য। এভাবেই এগিয়ে যান আপনি। আপনার জন্য রইল শুভকামনা। আলোকিত মানুষ হন।

মন্তব্য