| প্রচ্ছদ

ধুনটে রামদা’র কোপে নারীর হাত বিচ্ছিন্ন : ৯ জন আহত

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ১৫৪ বার। প্রকাশ: ১০ জুন ২০১৯ ।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় শেখ রাসেল স্মৃতি সংঘের সোলার প্যানেলের ব্যাটারি চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে সহিংস ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় রামদা’র কোপে শাহানা খাতুন (৫৫) নামের এক নারীর শরীর থেকে বাম হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়েছে। এছাড়ায় উভয় পক্ষের আরো ৮জন আহত হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলার ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়নের কৈয়াগাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। শাহানা খাতুন কৈয়াড়াড়ি গ্রামের কফিল উদ্দিনের স্ত্রী। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩জনকে আটক করেছে।
 
আহতরা হলো, কৈয়াগাড়ি গ্রামের কফিল উদ্দিনের ছেলে রুবেল আহম্মেদ (২২), ফরিদুল ইসলামের স্ত্রী সুফিয়া খাতুন (৪০), সাইদুল ইসলামের স্ত্রী তফুরা খাতুন (৩৫), এনদা আলী মন্ডলের ছেলে কফিল উদ্দিন (৫৮), বেলাল হোসেনের স্ত্রী সেলিনা খাতুন (২৬), আব্দুর রশিদের ছেলে আল আমিন (২৫), মনছের আলীর ছেলে আব্দুল মজিদ (৪০), আজাহার আলী ছেলে বিপ্লব হোসেন ও বিপ্লব হোসেনের স্ত্রী রনি খাতুন (২৫)। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কৈয়াগাড়ি গ্রামের শেখ রাসেল স্মৃতি সংঘের সোলার প্যানেলের ব্যাটারি প্রায় ছয় মাস আগে চুরি হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় ওই সংগঠনের সদস্য কৈয়াগাড়ি গ্রামের আল আমিনের সাথে একই গ্রামের লিমন মিয়ার মারধরের ঘটনা ঘটে। এ বিষয়টি নিয়ে সোমবার সকালে সমঝোতার বৈঠকের প্রস্তুতিকালে উভয় পক্ষের মধ্যে সহিংস ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় কফিল উদ্দিনের স্ত্রী শাহানা খাতুনের বাম হাতের কবজি রামদা’র কোপে শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। আহত শাহানা খাতুন বর্তমানে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছে। 

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন জানান, খবর পেয়ে বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজিউর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ঘটনাস্থলের প্রায় ২শ গজ দুরে একটি পুকুর থেকে শাহানা খাতুনের দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন কাটা হাতের কবজি উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আল আমিন, বিপ্লব হোসেন ও রনি খাতুনকে আটক করেছে। এছাড়া সংঘর্ষে ব্যবহৃত ২টি হাসুয়া উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। 
 

মন্তব্য