| প্রচ্ছদ

সাদ্দাম হত্যার বিচারের দাবিতে রাজপথে শিল্পী-নির্মাতারা

পুন্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৯১ বার। প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৯ ।

শুটিং সহকারী সাদ্দাম হোসেন ‘হত্যা’র বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে টেলিভিশন মিডিয়ার শিল্পী-নির্মাতা-কলাকুশলীরা। বুধবার উত্তরা রাজলক্ষ্মী মোড়ে এই মানববন্ধনে অংশ নেন তারা। ছিলেন ডিরেক্টরস গিল্ড, অভিনয় শিল্পী সংঘ, নাট্যকার সংঘ, প্রোডিউসার অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা।

মানববন্ধনে অংশ নেন নির্মাতা এসএ হক অলিক, অভিনেতা শহীদুজ্জামান সেলিম, সালাউদ্দিন লাভলু, মোশাররফ করিম, বৃন্দাবন দাশ, চঞ্চল চৌধুরী, তানিয়া আহমেদ, শাহনাজ খুশি, অপূর্ব, ঊর্মিলা শ্রাবন্তি করসহ অনেকে।

ডিরেক্টরস গিল্ডে সাংগঠনিক সম্পাদক তুহিন হোসেন বলেন, “শুটিং সহকারী হিসেবে কাজ করতো সাদ্দাম। ঈদের আগে বাড়ি ফেরার সময় লঞ্চ থেকে সে পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছিল। কিন্তু পরদিন তাকে খোঁজে পাওয়া যায়নি। এরপর নদীতে তার লাশ পাওয়া যায়। পরিবারের অভিযোগ, তাকে হত্যা করে নদীতে ফেলা দেওয়া হয়েছে। এই বিষয়টি তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাই।”

ঈদের আগে ‘ফারহান-১০’ নামের লঞ্চে করে বাড়ি ফিরছিলেন এফডিসির শুটিং সহকারী সাদ্দাম হোসেন (২২)। ২ জুন দুপুরে বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার কেদারপুর গ্রামের বাসিন্দারা সাদ্দামের মরদেহ সুগন্ধা নদীতে ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয়।

মৃত সাদ্দাম হোসেন বরিশালের উজিরপুর উপজেলার ওটরা গ্রামের মো. শাহজাহান ব্যাপারীর ছেলে। পরিবারের দাবি তাকে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

সাদ্দামের ভগ্নিপতি মো. মাইনুল জানান, লঞ্চে বসে সাদ্দাম মোবাইলে জানিয়েছে সে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছিল। অজ্ঞান পার্টির সদস্যদের সঙ্গে তার হাতাহাতি হয়। ওই খবর পেয়ে তিনি সাদ্দামকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য বানারীপাড়ার মীরেরহাট লঞ্চঘাটে অপেক্ষা করেন। কিন্তু সাদ্দাম আর আসেনি। তার মোবাইলও বন্ধ ছিল।

পরে পুলিশের কাছে খবর পেয়ে পরিবার সাদ্দামের মরদেহ শনাক্ত করে।

মন্তব্য