| প্রচ্ছদ

রশিদের লজ্জার রেকর্ড

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬১ বার। প্রকাশ: ১৮ জুন ২০১৯ ।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্পিন ভেলকি দেখানোর কথা ছিল তার। ২০ বছর বয়সীর লেগ স্পিন ইংলিশ ব্যাটিং লাইন গুঁড়িয়ে দিতে সেরা অস্ত্র হবে, এই ছিল আফগানিস্তানের দর্শকদের স্বপ্ন। কিন্তু হলো পুরোপুরি উল্টো। মঙ্গলবার ওল্ড ট্রাফোর্ডে রশিদকে গলির বোলার বানিয়ে ছাড়লেন ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। তাতে বিশ্বকাপ ইতিহাসে খরুচে বোলিংয়ের লজ্জার রেকর্ডে নাম ওঠে গেল রশিদের।

এদিন আগে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ৩৯৭ রানের পুঁজি গড়ে ইংল্যান্ড। রশিদ খান ৯ ওভার বল করে কোনো উইকেটের দেখা পাননি। ব্যয় করেছেন ১১০ রান। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এত খরুচে ছিলেন না কোনো বোলারই।

গেল বছর সর্বকনিষ্ঠ বোলার হিসেবে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ স্থান দখল করেছিলেন রশিদ। বর্তমানে ওয়ানডে বোলার র‌্যাঙ্কিংয়ে তার অবস্থান তৃতীয়। বিশ্বকাপে তাই তার ওপর চোখ ছিল সবার। কিন্তু আসরটা মোটেও ভালো যাচ্ছে না রশিদের।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ৫২ রান ব্যয়ে ১ উইকেট নেন। তার আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৭ রান ব্যয়ে ২ উইকেট নিয়েছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৪৫ রান খরচায় পান ১ উইকেট। আর এদিন ইংল্যান্ডের পেলেন দুঃস্বপ্ন উপহার।

এর আগে বিশ্বকাপে সবচেয়ে খরুচে বোলার ছিলেন নিউজিল্যান্ডের মার্টিন স্লেডেন। ১৯৮৩ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১২ ওভারে ২ উইকেট শিকার করতে ১০৫ রান ব্যয় করেন তিনি। তখন ওয়ানডে ক্রিকেট ছিল ৬০ ওভারে। একজন বোলার সর্বোচ্চ ১২ ওভার বল করতে পারতেন।

এই তালিকায় পরের দুই স্থানে আছেন জেসন হোল্ডার ও দৌলত জাদরান। ২০১৫ বিশ্বকাপে ক্যারিবীয় পেসার হোল্ডার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১০ ওভারে ১০৪ রান খরচায় ১ উইকেট নিয়েছিলেন। একই আসরে আফগান বোলার জাদরান ১০ ওভারে ১০১ রান খরচ করে পেয়েছিলেন ২ উইকেট।

বিশ্বকাপ ছাড়া ওয়ানডে খরুচে বোলিংয়ের তালিকায় তৃতীয় রশিদ।

মন্তব্য