| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে দুই প্রার্থীর মধ্যে

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ৭৩ বার

বগুড়া-৬ (সদর) শুন্য আসনে সোমবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।  এ আসনে ইলেকট্রিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট গ্রহণ করার মধ্যে দিয়েই এ জেলায় ইভিএম ভোটিং পদ্ধতি চালু করা হচ্ছে।  ইতোমধ্যে নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।  রাত পোহালেই সকাল ৯টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু করা হবে। চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।  এদিকে নির্বাচনে ৬ জন প্রার্থী থাকলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বী হবে নৌকা ও ধানের শীষের মধ্যে।
জেলা নির্বাচন অফিস জানায় এ আসনে এক লাখ ৯১ হাজার ৬৬৮ জন পুরুষ ও এক লাখ ৯৫ হাজার ৭৯০ জন মহিলা মিলে মোট ভোটার তিন লাখ ৮৭ হাজার ৪৫৮ জন।  ১৪১ টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহন করা হবে।  কেন্দ্র বুথ করা হয়েছে ৯৬৫টি। প্রতিটি বুথে ২টি করে মোট এক হাজার ৯৩০টি ইভিএম মেশিন থাকছে।  তারমধ্যে ৯৬৫টি ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হবে বাদ বাকী ৯৬৫টি রাখা হচ্ছে বেকাপ হিসেবে। কোন কারনে একটি ইভিএম অকেজো  হলে ব্যাকআপটি দিয়ে ভোটগ্রহণ অব্যাহত রাখা হবে।   রোববার প্রতিটি কেন্দ্রে ইভিএমসহ নির্বাচনী সকল সরঞ্জামাদী পৌঁেছ  দেয়া হয়েছে।  প্রতিটি কেন্দের প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসারদের ইভিএম সর্ম্পকে তিনদিনব্যাপী প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে।  তারা সকলে স্বাচ্ছন্দে ইভিএমে ভোট গ্রহণ করতে পারবেন বলে ১৯ জুন বগুড়া জিলা পরিষদ মিলানায়তে নির্বাচন কমিশন আয়োজিত সভায় অভিমত জানান।  ওই সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা,নির্বাচন কমিশনার বেগম কবিতা খানম ও নির্বাচন কমিশন সচিব মো: আলমগীর উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে ১৭ ও ১৮ জুন ভোটারদের ইভিএম সর্ম্পকে ধারণা দিতে ভোটারদের নিয়ে অনুশীলন করা হয়। সর্বশেষ ২২ জুন প্রতিটি কেন্দ্রে ইভিএম এর চুড়ান্ত রিহার্সেল হয়।  সেখানে বিএনপির অনেক ভোটারও অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া বিএনপি ইভিএম এর বিরোধীতা করলেও শেষ মুহুর্তে এসে শুক্রবার বিএনপি নিজ উদ্যোগে শহরের টিটু মিলনায়তনে বিএনপির কেন্দ্র এজেন্টদের ইভিএম এর উপর প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।  প্রতিটি কেন্দ্রে সেনাবাহিনীর ২জন ও নির্বাচন কমিশনের ১জনসহ ৩জন করে ইভিএম এক্সপার্ট থাকবেন।

মন্তব্য