| প্রচ্ছদ

বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচেও আলিম দার!

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৭১ বার। প্রকাশ: ২৬ জুন ২০১৯ ।

আলিম দারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে বারবার ক্ষতির মুখে পড়লেও পাকিস্তানী এই আম্পায়ারের হাত থেকে যেন রেহাই পাচ্ছে না বাংলাদেশ। পরের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে টাইগারদের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও থাকছেন তিনি।

চলতি বিশ্বকাপে নিজেদের সবশেষ ম্যাচ আফগানিস্তানের বিপক্ষে আলিম দারের বাজে এক সিদ্ধান্তের শিকার হয় বাংলাদেশ। ৬২ রানে জয় পাওয়া ম্যাচটিতে আফগান স্পিনার মুজিব-উর রহমানের বলে লিটন দাসের একটি ক্যাচ নিয়ে বিতর্কের জন্ম দেন আলিম দার। লিটনের ক্যাচটি ধরেন হযরতুল্লাহ শহিদি। টিভি রিপ্লেতে বারবার দেখা যায়- বলটা মাটি থেকে কুড়িয়ে তুলেছেন শহিদি। কিন্তু টিভি আম্পায়ার আলিম দার সেটাকে আউট বলে ঘোষণা দেন।

সাকিব আল হাসানের এলবিডব্লিউ আউট নিয়েও বিতর্কের অবকাশ রয়েছে। মুজিব-উর রহমানের উপর্যুপুরি আবেদনের মুখে অনেকক্ষণ বিরতি নিয়ে আঙ্গুল তোলেন মাঠের আম্পায়ার। সাকিব রিভিউ নিলে দেখা যায় বলটা লেগ স্ট্যাম্পে হয়তো আলতো ছোঁয়া দিয়ে চলে যেতো বাইরে। এমন পরিস্থিতিতে সাধারণত আম্পায়াররা আউট দেন না। কিন্তু রিভিউতে তাই মাঠের আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই বহাল রাখলেন আলিম দার।

সেই আলিমদার আবারও বাংলাদেশের ম্যাচে। ২ জুলাই ভারতের বিপক্ষে বার্মিংহ্যামের এজবাস্টনে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। নিজেদের সেমি-ফাইনালের সম্ভাবনা টিকিয়ে রাখতে হলে বাংলাদেশের সামনে জয় ছাড়া বিকল্প নেই। কিন্তু ম্যাচটিতে আলিম দারের সঙ্গেও খেলতে হবে টাইগারদের।

তবে ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচেও কিন্তু আলিম দার মাঠের মূল আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করবেন না। থাকবেন টিভি আম্পায়ার হিসেবে। মাঠের দুই আম্পায়ার পালিয়াগুরুগে ও মরিস ইরাসমাস কোনো সিদ্ধান্তের জন্য টিভি আম্পায়ারের দিকে রেফার করলে কিংবা কেউ রিভিউ নিলে সেটা দেখার দায়িত্বে থাকবেন।

পাকিস্তানি আলিম দার। তখন আবারও বিতর্কিত সিদ্ধান্ত দিয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে অবস্থান নেয়াটা বিচিত্র কিছু হবে না আলিম দারের জন্য!

বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি বড় বড় ম্যাচেই দায়িত্ব দেয়া হয় আলিম দারের কাঁধে। ২০১৫ বিশ্বকাপের-কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে আলিম দার ছিলেন মাঠের আম্পায়ার। সেদিন রোহিত শর্মার ক্যাচ বাতিল করে দিয়ে সরাসরি বাংলাদেশের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিলেন এই পাকিস্তানি আম্পায়ার। সঙ্গে ছিলেন ইংল্যান্ডের ইয়ান গোল্ড।

মন্তব্য