| প্রচ্ছদ

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯

কোহলি-ধোনির ব্যাটে ভারতের লড়াইয়ের পুঁজি

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৭৩ বার। প্রকাশ: ২৭ জুন ২০১৯ ।

প্রথম ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপে টানা চারটি ফিফটির কীর্তি গড়লেন বিরাট কোহলি। শচীন টেন্ডুলকার ও ব্রায়ান লারাকে পেছনে ফেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্রুততম ২০ হাজার রানও পূরণ করে ফেললেন এদিন। মহেন্দ্র সিং ধোনি পেলেন আসরে নিজের প্রথম ফিফটি। এই দুইয়ের ব্যাটে ভর করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে লড়াইয়ের পুঁজি গড়ল ভারত।

বৃহস্পতিবার ওল্ড ট্রাফোর্ডে টস জিতে আগে ব্যাট করে ৭ উইকেটে ২৬৮ রানের পুঁজি গড়ে ভারত। কোহলি ৮২ বলে ৭২ রানের ইনিংস খেলেছেন। ধোনি অপরাজিত ছিলেন ৫৬ রানে। এ ছাড়া ৪৬ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেছেন হার্দিক পান্ডিয়া। ৪৮ রানের ইনিংস খেলেছেন লোকেশ রাহুল।

এদিন দলীয় ২৯ রানে রোহিত শর্মার উইকেট হারায় ভারত। কেমার রোচের বলে ব্যক্তিগত ১৮ রান করে উইকেটের পেছনে ক্যাচ হন এই ডানহাতি ব্যাটার। যদিও আউটটা নিয়ে রয়েছে বিতর্ক। ফিল্ড আম্পায়ার আউট না দিলেও রিভিউ নিয়ে নিজেদের পক্ষে সিদ্ধান্ত পায় উইন্ডিজ। কিন্তু বলটা ব্যাটে লাগেনি বলে রোহিত ছিলেন আত্মবিশ্বাসী। মাঠ ছাড়ার সময় তার অভিব্যক্তিতে তা ছিল স্পষ্ট। 

এরপর বিরাট কোহলি ও লোকেশ রাহুলের ৬৯ রানের জুটি গড়লেন। রাহুলকে ফিফটি বঞ্চিত করেন হোল্ডার। ৪৮ রান করে বোল্ড হয়ে ফেরেন এই ওপেনার।

এরপর ফের রোচ তোপ। ব্যক্তিগত ১৪ রানেই বিজয় শংকরকে ফেরান রোচ। এরপর কেদার যাদবও ফিরেছেন রোচের শিকার হয়ে। ব্যক্তিগত ৭ রানে ফিরতে হয়েছে তাকে। তাতে ১৪০ রানে ৪ উইকেট হারায় ভারত।
দলীয় ১৮০ রানে ফেরেন কোহলি। হোল্ডারের বলে বদলটি ফিল্ডার ব্রাভোর হাতে ক্যাচ হন তিনি। ধোনির সঙ্গে ৪০ রানের জুটির অবসান হয় তাতে।

তবে পান্ডিয়ার সঙ্গে ষষ্ঠ উইকেটে ৭০ রানের জুটি হলো ধোনির। শেলডন কটরেলের শিকার হওয়ার আগে পান্ডিয়া ৩৮ বলে ৫ চারে ৪৬ রানের ইনিংস খেললেন। ৪৯তম ওভারে পান্ডিয়া ও শামির উইকেট হারালেও শেষ ওভারে দুই ছক্কা ও এক চারে মোট ১৪ রান তোলেন ধোনি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে সর্বাধিক ৩ উইকেট নিয়েছেন কেমার রোচ। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন শেলডন কটরেল ও জেসন হোল্ডার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য এই ম্যাচ ‘ডু অর ডাই’ লড়াই। হেরে গেলেই বিশ্বকাপের বাকি সময়টা ক্যারিবীয়দের জন্য হবে নিছক আনুষ্ঠানিকতা। পক্ষান্তরে জয় পেলে সেমিফাইনালের খুব কাছে চলে যাবে টিম ইন্ডিয়া।

মন্তব্য