| প্রচ্ছদ

কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পরিশোধের দাবি

বগুড়া পৌরসভায় চলছে কর্মবিরতি: মঙ্গলবার সকাল থেকে ২৪ ঘন্টা জ্বলবে না সড়কবাতি

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
পঠিত হয়েছে ৯০ বার। প্রকাশ: ০১ জুলাই ২০১৯ ।

দেশের সকল পৌরসভার জনপ্রতিনিধি এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে বগুড়া পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সোমবার দিনব্যাপী কর্মবিরতি পালন করেছেন। বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন ঘোষিত দু’দিনব্যাপী কর্মসূচীর প্রথম দিনে ওই পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সংস্থার সব দফতরের কক্ষে তালা ঝুলিয়ে রাখেন। এ সময় তারা পৌরসভার প্রধান ফটকে সমাবেশ করেন।
ওই কর্মসূচী থেকে মঙ্গলবার শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথায় সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত কর্মবিরতি পালনের ঘোষণা দেওয়া হয়। এছাড়া মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে পরদিন বুধবার সকাল ৬টা পর্যন্ত বগুড়া শহরের সড়কবাতি এবং কঞ্জারভেন্সি (পানি সরবরাহ) সেবা বন্ধ রাখারও ঘোষণা দেওয়া হয়।
সোমবার দিনভর কর্মবিরতি পালনকালে অনুষ্ঠিত সমাবেশ থেকে পৌরসভাগুলোকে স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রতিষ্ঠান উল্লেখ করে ওই বিভাগের আওতাধীন অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মত তাদেরও বেতন-ভাতা এবং পেনশন সুবিধা রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে প্রদানের দাবি জানান। বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বগুড়া পৌরসভা কমিটির সভাপতি আবু জাফর মোঃ রেজার সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ, রাজশাহী বিভাগীয় সাধারণ মোঃ আল মেহেদী হাসান, বগুড়া পৌরসবার নির্বাহী প্রকৌশলী আবু হেনা মোস্তফা কামাল, জেলা কমিটির সাধারণসম্পাদক হুমায়ুন কবীর, জীবন কৃৃষ্ণ যাদব, মোঃ নুরুন্নবী, মোঃ রাখিউল আবেদীন, মোঃ শফিউল আলম, নূরেশ জোহরা, আমমেদ কামরুল হাসান, মোঃ শাহ্ আলী খান, দেওয়ান আহসানুর রাশেদ, মোঃ কামাল হোসেন, মোঃ আব্দুল হাই, মোছাঃ বাবলী আক্তার, পারভীন আক্তার, মোঃ রবিউল ইসলাম, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, মোঃ আরিফুর রহমান ও মোঃ মশিউর রহমান।

াহ আলী খান, দেওয়ান আহসানুর রাশেদ, মো: কামাল হোসেন, মো: আব্দুল হাই, মোছা: বাবলী আক্তার, পারভীন আক্তার, মো: রবিউল ইসলাম, মো: জাহিদুল ইসলাম, মো: আরিফুর রহমান, মো: মশিউর রহমানসহ আরও অনেকে। বক্তাগণ রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে জনপ্রতিনিধিদের সন্মানী ভাতা, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও পেনশন প্রথা চালু করার স্বার্থে কেন্দ্রিয় কমিটি কর্তৃক ঘোষিত যে কোন কর্মসূচি সর্বাত্মকভাবে পালন করার জন্য অঙ্গীকার করেন। কর্মবিরতি চলাকালীন সময়ে বগুড়া পৌরসভার সকল সেবা প্রদান বন্ধ থাকে। আগামীকালও উক্ত রূপ কর্মসূচী সকাল ৯:০০ টা থেকে দুপুর ১:০০ পর্যন্ত সাতমাথায় পালিত হবে এবং  ঐদিন সকাল  ৬টা হতে ৩ জুলাই ২০১৯ইং তারিখ সকাল  ৬টা পর্যন্ত সড়ক বাতি ও কঞ্জারভেন্সী সেবা  বন্ধ থাকবে। সমাবেশে বক্তারা স্থানীয় সরকার বিভাগের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ন্যায় দেশের সকল পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও পেনশন সরকারী কোষাগার থেকে প্রদান করার জোড়ালো দাবী জানান। ওই একই দাবিতে জেলার শেরপুর, সান্তাহার, দুপচাঁচিয়া, তালোড়া, কাহালু, গাবতলী, সারিয়াকান্দি, সোনাতলা, ধুনট, শিবগঞ্জ ও নন্দীগ্রাম পৌরসভাতেও কর্মবিরতি পালন করা হয়।

মন্তব্য