| প্রচ্ছদ

প্রধান শিক্ষক ও স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির বিরোধ

সারিয়াকান্দির চন্দনবাইশা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪ দিন যাবৎ শিক্ষার্থী শূন্য

সারিয়াকান্দি(বগুড়া)প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ১০০ বার। প্রকাশ: ০২ জুলাই ২০১৯ ।

সারিয়াকান্দির চন্দনবাইশা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির দন্দ্বের কারণে ৪ দিন ধরে শিক্ষার্থী স্কুলে না আসায় ক্লাশ নিতে পারছেন না শিক্ষকরা। গত ২৯ জুন থেকে স্কুলের বারান্দায় বসে অলস সময় কাটছে শিক্ষকদের।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক কয়েকজন অভিভাবক জানান, প্রধান শিক্ষকের সাথে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির দন্দ্বের কারণে শিক্ষার্থীরা স্কুলে যেতে পারছে না। এভাবে চলতে থাকলে আমরা ছেলে মেয়েদেরকে  অন্য স্কুলে ভর্তি করাতে বাধ্য হব। 


বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জুঁই আক্তার বলেন, 'গত নভেম্বর মাসে বিদ্যালয়ের উন্নয়ন মূলক কাজের জন্য ৪০ হাজার টাকা বরাদ্দ আসে। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও চন্দনবাইশা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহাদত হোসেন দুলাল ওই টাকা চেয়েছিল। আমি তাকে স্কুলের টাকা না দেয়ায় তখন থেকে আমাকে বদলী করার জন্য একের পর এক ঘটনা ঘটাচ্ছে । সেই জের ধরে বিদ্যালয়ের হাজিরা খাতা সহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সভাপতি তার বাড়ীতে নিয়ে গেছেন। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে বিদ্যালয়ে আসতে নিষেধ করায় বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা শনিবার থেকে উপস্থিত হচ্ছেনা। বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।'


বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাহাদত হোসেন দুলাল বলেন, 'বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ম্যানেজিং কমিটিকে তোয়াক্কা না করে ইচ্ছা মতো কাজ করে যাচ্ছেন। তার বিরুদ্ধে শিক্ষা অফিস সহ বিভিন্ন জায়গায় ৫টি অভিযোগ করা হয়েছে। গত ফেব্রয়ারী মাসে এলাকাবাসী প্রধান শিক্ষকের বদলীর দাবী জানিয়ে ঝাড়ু মিছিল করেছে । শিক্ষা অফিসের গাফিলতির কারণে প্রধান শিক্ষককে বদলী করা হচ্ছেনা।'

 
উপজেলা শিক্ষা অফিসার রফিকুল আলম বলেন, 'বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী উপস্থিত না থাকায় শিক্ষকরা ক্লাশ নিতে পারছেন না। প্রধান শিক্ষক লিখিত অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।'

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ বলেন, 'উপজেলা শিক্ষা কমিটির সভাপতির সাথে আলোচনা করে শীঘ্রই স্কুলের ক্লাশ চালু করা হবে।

উপজেলা শিক্ষা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মুহম্মদ মুনজিল আলী সরকার বলেন, 'সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান মহোদয়ের সাথে ওই স্কুলের বিষয়ে কথা হয়েছে । আগামীকাল তিনি এলাকায় আসবেন তখন প্রধান শিক্ষক ও সভাপতির সাথে কথা বলে বিষয়টি সমাধান করা হবে।

মন্তব্য