| প্রচ্ছদ

সিরাজের বিরুদ্ধে নুসরাতের যৌন নিপীড়নের মামলা ট্রাইব্যুানালে স্থানান্তর

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৭ বার

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নির্যাতন করার মামলায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করে মামলাটি বিচারের জন্য নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়েছে। খবর সমকাল অনলাইন 

বৃহস্পতিবার সকালে শুনানির পর ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. জাকির হোসাইনের আদালত এ আদেশ দেয়। 

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) বুধবার বিকেলে আদালতে নুসরাতের ওপর যৌন নির্যাতন মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করে। 

মামলায় সিরাজ উদ্দৌলাকে একমাত্র আসামি করে তার  বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১০ ধারায় অভিযোগ দাখিল করা হয়।

গত ২৭ মার্চ অধ্যক্ষ নুসরাত জাহান রাফিকে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে যৌন নির্যাতন করেন। এ ঘটনায় নুসরাতের মা শিরিন আক্তার ওই দিনই সোনাগাজী থানায় মামলা করেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ফেনী কারাগার থেকে সিরাজ উদ দৌলাকে বিচারক মো. জাকির হোসেনের আদালতে হাজির করা হয়। আদাালত মামলার বিষয়ে পিবিআই কর্মকর্তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন ও অভিযোগপত্রের বিষয়ে জানতে চান।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই ইন্সেপেক্টর শাহ আলম শুনানিকালে অভিযোগপত্রের বিষয়ে আদালতকে অবহিত করেন। পর্যালোচনা শেষে বিচারক মামলার অভিযোগপত্রসহ সকল কাগজপত্র  ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে পাঠানোর নির্দেশ দেন। শুনানির সময় সিরাজের পক্ষে কোনও আইনজীবীকে দেখা যায়নি। 

গত ২৭ মার্চ নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নির্যাতন করেন অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলা। এ ঘটনায় নুসরাতের মা শিরিন আক্তার সোনাগাজী থানায় মামলা করলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

এরপর মামলা তুলে নিতে ৬ এপ্রিল ওই মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষা কেন্দ্রে নুসরাত জাহান রাফির শরীরে অধ্যক্ষ সমর্থক দুর্বৃত্তরা আগুন ধরিয়ে দেয়। মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে নুসরাত ১১ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ বার্ন ইউনিটে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

নুসরাত হত্যার ঘটনায় পিবিআই অধ্যক্ষ সিরাজসহ ১৬ জনকে আসামি করে ও নুসরাতের ওপর যৌন নির্যাতন ঘটনায় অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করে।

মন্তব্য