| প্রচ্ছদ

দুর্নীতির অংশ হতে চান না বলে পদক বয়কট মেসির!

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৭৬ বার। প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০১৯ ।

লিওনেল মেসির এই রূপ হয়তো আগে কেউ দেখেননি। লাল কার্ড দেখে রাগে দু:খে মাঠ ছেড়েছেন। ম্যাচের পর সংবাদ মাধ্যমে দিলেন বিস্ফোরক তথ্য। পুরো দল পদক নিলেও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানই বয়কট করলেন মেসি। সব মিলিয়ে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত এবারের কোপা আমেরিকা টুর্নামেন্টটা খুব বাজেভাবেই কাটলো আর্জেন্টিনার।

কোপা আমেরিকার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে চিলির বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পায় আর্জেন্টিনা। করিন্থিয়াস এরেনায় ম্যাচের ৩৭ মিনিটের মাথায় বল মাঠের মধ্যে রাখতে গিয়ে চিলির ডিফেন্ডার গ্যারি মেডেলের সঙ্গে সংঘর্ষ বেঁধে যায় মেসির। টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, মেডেল বারবার ধাক্কা মারতে থাকলেও মেসি ছিলেন নির্লিপ্ত। তবে অতি উৎসাহী রেফারি লাল কার্ড দেখালেন মেসিকেই। সার্জিও আগুয়েরো ও পাওলো দিবালার গোলে ম্যাচটা জিতলেও খুশি হতে পারেনি আর্জেন্টাইনরা।

প্রায় ১৪ বছর পর দ্বিতীয়বারের মতো লাল কার্ড দেখতে হয়েছে মেসিকে। ২০০৫ সালে আর্জেন্টিনার জার্সিতে নিজের অভিষেক ম্যাচেই প্রথম লাল কার্ড দেখেছিলেন মেসি। সেবারের মতো এবারও তিনি ভুল সিদ্ধান্তের শিকার হলেন তিনি।।

ম্যাচ শেষে দেখা মিলল অন্য এক মেসির। ভয়াবহ অভিযোগ করে বসলেন টুর্নামেন্ট কৃতপক্ষের বিরুদ্ধে। মেসি বলেন, ‘এবারের কোপায় আমাদের সঙ্গে অন্যায় করা হয়েছে। আমরা ফাইনালে যেতে পারতাম, অন্যায়ভাবে আটকে দেওয়া হয়েছে। এই দুর্নীতিতে আমরা অংশগ্রহণ করতে চাই না বলেই পদক নিতে যাইনি।’

মেসি আরো বলেন, ‘দুর্নীতি এবং বাজে রেফারিংয়ের কারণে ফুটবল ভক্তরা বঞ্চিত হল সুন্দর খেলা উপভোগ করা থেকে। এরই সঙ্গে ফুটবলকেও তারা ধ্বংস করার চেষ্টাই করছে।’

নিজের লাল কার্ড পাওয়া প্রসঙ্গেও এ মেসি বলেন। ‘আগের ম্যাচে সত্য কথা বলার জন্যই কথার জন্যেই এটা আমার জন্যে বরাদ্দ ছিল।’ এবারে টুর্নামেন্টে বাজেভাবে ফ্লপ ছিলেন মেসি ও আর্জেন্টিনা।

গ্রুপ পর্ব থেকে খোড়াতে খোড়াতে সেমিফাইনালে উঠলেও সেমিফাইনালে ব্রাজিলের বিপক্ষে ২-০ গোলে পরাজিত হয়ে টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয় আর্জেন্টিনা। ওই ম্যাচে আর্জেন্টিনার দুটি পেনাল্টির আবেদনে সাড়া দেননি রেফারি। রিপ্লেতে দেখা যায় পেনাল্টি পেতে পারত আর্জেন্টিনা। সেই ম্যাচের পর মেসি মন্তব্য করেছিলেন, 'ব্রাজিলকে জেতাতেই নাকি আর্জেন্টিনাকে হারানো হয়েছে।'  

মন্তব্য