| প্রচ্ছদ

বগুড়ার শাজাহানপুরে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৭ ব্যক্তি গ্রেফতার

শাজাহানপুর(বগুড়া)প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ১৬৭ বার

বগুড়ার শাজাহানপুরে ডাকাতির প্রস্তুতির সময় ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার দিবাগত রাতে উপজেলার আমরুল ইউনিয়নের শাখাটিয়া ব্রীজের কাছ থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় ডাকাত দলের বাকি ৭ জন পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত সিএনজি চালিত একটি রেজিস্ট্রেশনবিহীন থ্রি-হুইলার, লাইলন ও পাটের রশি, একটি করাত এবং দুইটি হাসুয়া উদ্ধার করেছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- বগুড়া ধুনট উপজেলার বিলচাপড়ী গ্রামের মোজাফ্ফর রহমান শাহ এর ছেলে মমিন শাহ(২৫), মৃত মতিউর রহমান মাস্টারের ছেলে মশিউর রহমান মাছুম(৩৮), বাদশা মন্ডলের ছেলে দেলোয়ার হোসেন(২৫), আজাহার আলী সরকারের ছেলে মশিউর রহমান(৪২), মোসলেম উদ্দিনের ছেলে শহিদুল ইসলাম(৩৪), মৃত রাজা প্রামানিকের ছেলে রজব আরী(৪৪) একই উপজেলার রামনগর গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে শফিকুল ইসলাম(২৮)।

শাজাহানপুর থানার পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ জানান, পুলিশ ওয়ারেন্টের আসামী ধরতে ওই এলাকায় গিয়েছিলো। এসময় রাস্তায় একটি সিএনজি চালিত সবুজ রঙের থ্রি-হুইলার এবং কয়েকজনকে বসে থাকতে দেখে সন্দেহ হয়। পুলিশকে দেখে সঙ্গে সঙ্গে প্রায় ৭জন দৌড়ে পালিয়ে গেলেও বাকী ৭জনকে আটক করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে নিশ্চিৎ হওয়া যায় এরা ডাকাতি করার জন্য সেখানে বসেছিলো।

এর আগে গত শুক্রবার রাত নয়টার দিকে রাজারামপুর গ্রামের নুরুজ্জামান এবং শহিদুল নামে দুই ব্যক্তি ওই রাস্তা দিয়ে আসছিলেন। এসময় শাখাটিয়া পাকুর গাছের কাছে তাদের মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে কাছে থাকা মোবাইল ফোন এবং টাকা লুট করে ছেড়ে দেয় ডাকাতরা। পরে তারা এসে বাজারে লোকজনের কাছে ঘটনাটা খুলে বলে। এসময় সেখানে উপস্থিত পলিপলাশ গ্রামের ফরিদুল মোটর সাইকেলে করে নুরুজ্জামানকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে যায় টাকা এবং মোবাইল ফোন উদ্ধার করতে। ডাকাতদল ফরিদ এবং নুরুজ্জমানকেও বেঁধে রাখে এবং টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে নেয়। ডাকাতরা অনেক পরে তাদের ছেড়ে দেয় এবং ফসলী মাঠের ভেতর দিয়ে চলে যেতে বলে।

উপজেলার আমরুল ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অটল জানান, তার ইউনিয়নের প্রায় শেষ প্রান্তে শাখাটিয়া। বগুড়া শাজাহানপুর এবং ধুনট উপজেলার সীমান্ত বর্তি এলাকা হওয়ায় অপরাধীরা সুযোগ নেয়।

থানায় ডাকাত ধরা পরেছে শুনে ডাকাতির শিকার ওই ব্যক্তিরা ডাকাতদের কয়েক জনকে শনাক্ত করেছেন।

মন্তব্য