| প্রচ্ছদ

রিফাত ফরাজী ফের ৭ দিনের রিমান্ডে

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫২ বার

বরগুনায় স্ত্রীর সামনে স্বামী রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনার ২নং আসামি রিফাত ফরাজীকে ফের রিমান্ডে নিয়েছেন আদালত।

সোমবার বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে রিফাত ফরাজীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। পরে সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

এর আগে বন্দুকযুদ্ধে নিহতের ঘটনায় উদ্ধারকৃত অস্ত্রের জন্য দায়ের করা মামলায় রিফাত ফরাজীকে আদালতে হাজির করা হয়।

রিফাত শরীফ হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বরগুনা সদর থানার ওসি (তদন্ত) হুমায়ন কবির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পুলিশের দায়ের করা অস্ত্র মামলায় রিফাত ফরাজীকে আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করে পুলিশ। পরে আদালত রিফাতের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে ৪ জুলাই বিকালে গ্রেফতার রিফাত ফরাজীকে আদালতের মাধ্যমে পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। এ সময় তার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

এদিকে এ নিয়ে রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় মোট ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরা হলো- মামলার ২নং আসামি রিফাত ফরাজী, ৪নং আসামি চন্দন, ৯নং আসামি হাসান, ১১নং আসামি অলি এবং ১২নং আসামি টিকটক হৃদয়।

এছাড়া ভিডিও ফুটেজ দেখে নাজমুন হাসান, তানভীর, সাগর, সাইমুন ও রাব্বি নামে পাঁচজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে চন্দন ও হাসান সাত দিনের রিমান্ডে রয়েছে এবং আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে অলি ও তানভীর।

২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে বরগুনা সরকারি কলেজে নিয়ে যান রিফাত। পরে কলেজ থেকে স্ত্রীকে নিয়ে ফেরার সময় মূল ফটকে নয়ন, রিফাত ফরাজী ও তার ছোট ভাই রিশান ফরাজীসহ কয়েক যুবক রিফাত শরীফের ওপর হামলা চালায়।

এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে রিফাত শরীফকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে তারা। ওই দিন রাতে রিফাত শরীফের বাবা দুলাল শরীফ ১২ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় মামলা করেন।

মন্তব্য