| প্রচ্ছদ

বগুড়ার শেরপুরে বিয়ের প্রলোভনে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৭৫ বার

বগুড়ার শেরপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে (১৫) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের বালেন্দা গ্রামের সাহেব আলীর ওই প্রতিবন্ধী কিশোরী মেয়ে বাদি হয়ে পাঁচজনের বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। 


অভিযোগে জানা যায়, জেলার ধুনট উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের রাঙামাটি (ফকিরবাড়ী) গ্রামের জাহেদ আলীর ছেলে মো. সোহেল রানার সঙ্গে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ওই প্রতিবন্ধী কিশোরী মেয়ের পরিচয় ঘটে। একপর্যায়ে কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেয় সোহেল রানা। পরে ওই কিশোরীকে নিয়ে তিনি ঢাকায় চান্দুরা এলাকায় একটি বাড়ি ভাড়া নেয়। এমনকি চলতি বছরের ০৫জানুয়ারি থেকে সেখানে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে পরিচয় দিয়ে বসবাস করতে থাকেন। এসময় একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করা হয়। কিন্তু বিয়ের কথা বললে সে এড়িয়ে যায়। তবে পারিবারিকভাবে চাপ দেয়া হলে বিয়েতে রাজী হন সোহেল রানা। এজন্য জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে উপজেলার বালেন্দা গ্রামস্থ মেয়ের বাড়িতে আসেন তারা। কিন্তু গত ০৮জুলাই বিয়ের বাজার করার জন্য শেরপুর শহরে এসে কৌশলে পালিয়ে যায় লম্পট সোহেল রানা। পরবর্তীতে ভুক্তভোগী ওই কিশোরী বাদি হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়।

শেরপুর থানার এসআই পুতুল মোহন্ত বলেন, 'ঘটনাটি সম্পুর্ণ ঢাকায় ঘটেছে। তাই অনেক তথ্যই আমাদের অজানা। এরপরও অভিযোগটি গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্তের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য