| প্রচ্ছদ

শরণার্থী শিশুর মৃত্যুর কথা শুনে চোখে জল কর্তেজ়ের

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২০ বার। প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৯ ।

 

দেড় বছরের মেয়েকে নিয়ে গুয়াতেমালা থেকে প্রাণ বাঁচাতে এসেছিলেন আমেরিকায়। গত বছর মার্কিন অভিবাসন দফতর সেই মা, ইয়াসমিন জুয়ারেজ়কে আটকে দেয়। তার পরের গল্পটা শুধু হারানোর। যা শুনে চোখে জল ধরে রাখতে পারেননি মার্কিন কংগ্রেসের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য আলেকজ়ান্দ্রিয়া ওকাসিয়ো কর্তেজ়। খবর আনন্দবাজার।

 

মার্কিন কংগ্রেসের সামনে এক শুনানিতে গুয়াতেমালার শরণার্থী ইয়াসমিন জানিয়েছেন, বছর পেরিয়েছে। কিন্ত তাঁর মেয়েটা আর তাঁর কাছে নেই। মেক্সিকো সীমান্তের ডিটেনশন সেন্টারে ২০ দিন আটক থাকার পরে ফুসফুসে মারাত্মক সংক্রমণ হয়েছিল শিশুটির। রোগে ভুগে চিকিৎসা না পেয়ে মারা যায় সে।

 

ইয়াসমিনের কথা শুনে শুধু আলেকজ়ান্দ্রিয়া নন, আরও কয়েক জন এগিয়ে এসে জড়িয়ে ধরে সান্ত্বনা দিয়েছেন মেয়ে-হারা মাকে। গত কাল মার্কিন কংগ্রেসের শুনানিতে মেয়ের সঙ্গে তোলা একটি ছবি সামনে রেখে সাক্ষ্য দিয়েছেন ইয়াসমিন। জানিয়েছেন, প্রাণ বাঁচাতে গুয়াতেমালা ছেড়ে মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে মেয়ে মারিকে নিয়ে আমেরিকায় এসেছিলেন তিনি। আশ্রয় চাইলেও তাঁদের ভয়ানক একটি ঠান্ডা খাঁচায় বেশ কিছু দিন আটকে রাখা হয়। তার পরে পাঠানো হয় আইসিই ডিটেনশন সেন্টারে। সেখানেই অসুস্থ হয়ে পড়ে মারি। ইয়াসমিনের কথায়, ‘‘আমি চিকিৎসকদের কাছে বারবার অনুরোধ করেছি, আমার মেয়েটাকে একটু দেখুন। ওঁরা দেখেননি। আইসিই থেকে ছাড়ার পরে আমি মারিকে নিয়ে ডাক্তারের কাছে ছুটেছিলাম। কিন্তু অনেক দেরি হয়ে গিয়েছিল। মারি আর হাসপাতাল থেকে ফেরেনি।’’

মন্তব্য