| প্রচ্ছদ

গাবতলীতে প্রতিপক্ষের কুড়াল ও দায়ের কোপে আহত দুলাল মারা গেছে

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ৬৬ বার। প্রকাশ: ১৩ জুলাই ২০১৯ ।

বগুড়ার গাবতলীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের চাইনিজ কুড়াল ও দায়ের কোপে দুলাল প্রাং (৪৬) নামের এক ব্যক্তি বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় পুলিশ দু’জন মহিলাকে আটক করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার রামেশ্বরপুর ইউনিয়নের ঘোন সাঘাটিয়া গ্রামে। নিহত দুলাল ওই গ্রামের লাল মোহাম্মাদের ছেলে।


জানা গেছে, গাবতলী উপজেলার রামেশ্বরপুর ইউনিয়নের ঘোন সাঘাটিয়া গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে মিনহাজুলের (৪৫) সাথে ঘোন সাঘাটিয়া নয়াপাড়া গ্রামের খাজা মিয়ার ছেলে জাকিরুলের (২৩) গত রমজান মাসে তুচ্ছ এক ঘটনাকে কেন্দ্র করে তর্কবিতর্কের একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে মারপিটের ঘটনা ঘটে। এতে মিনহাজুল বেশী আহত হয় এবং তা ঐ গ্রামে বসে মিমাংসাও হয়। এরই জের ধরে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় আবারও মিনহাজুল ও জাকিরুলের মধ্যে মারপিট শুরু হয়। এ সময় জাকিরুল তার দলবল নিয়ে ঘোন সাঘাটিয়া গ্রামের আমজাদের ছেলে রকি (৩০)কে তুলে নিয়ে যায়। তারপর রকির বাবা আমজাদ, রকির চাচা দুলাল, তার স্ত্রী ইউপি সদস্য নাজমাসহ ৭/৮জন রকিকে উদ্ধার করার জন্য সাঘাটিয়া নয়াপাড়া গ্রামে যায়। এতে উত্তেজনা বেড়ে গেলে জাকিরুল, মোকলেছ, মুক্তার, সবুজ ও ফারুকের নেতৃত্বে ৫০/৬০জন লোক রকির লোকদের উপর চড়াও হয়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সময় প্রতিপক্ষরা চাইনিজ কুড়াল দিয়ে দুলালের মাথায় এবং দা দিয়ে হাটুতে দা দিয়ে কোপ দিলে সে মাটিতে পড়ে যায়। এ সময় দুলালকে বাঁচাতে এসে কাজল (৩৫), আমজাদ (৫২) ও রনি (২২) গুরুত্বর আহত হয়। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শজিমেক) ভর্তি করে।

এদের মধ্যে দুলালের অবস্থা আশংকাজনক হলে তাকে ফাতেমা ক্লিনিকে ঐ রাতেই ভর্তি করে। সেখানে দুলালের শারীরিক অবস্থা আরও অবনতি হলে দুলালকে আবারও রাত ১টায় শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকাল পৌনে ১০টায় দুলাল মারা যান। এ ঘটনায় পুলিশ সকালে ঘোন সাঘাটিয়া নয়াপাড়া গ্রামের ওমর ফারুকের স্ত্রী রেশমা বেগম (২৫) ও ঠান্ডু মিয়ার স্ত্রী নাজমা বেগম (৪০)কে আটক করেছে।

এ প্রসঙ্গে গাবতলী মডেল থানার ওসি সেলিম হোসেন জানান, দুলাল খুনের ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। ইতিমধ্যে ২জনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। উত্তেজনাকর পরিস্থিতি নিয়স্ত্রণে ঘটনাস্থলে বর্তমানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

মন্তব্য