| প্রচ্ছদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

বগুড়ার ধুনটে প্রায় দু’হাজার পরিবার পানিবন্দি

আমিনুল ইসলাম শ্রাবণ, ধুনট (বগুড়া) থেকে
পঠিত হয়েছে ৩৮৮ বার। প্রকাশ: ১৪ জুলাই ২০১৯ ।

বগুড়ার ধুনট ও সারিয়াকান্দিতে বন্যা পরিস্থিতি আরো অবনতি হয়েছে। যমুনা নদীতে অস্বাভাবিক হারে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। শনিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২৪ ঘন্টায় ৩৫ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। রোববার সন্ধ্যা ৬টায় সারিয়াকান্দি পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি বিপদসীমার ৪৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সারিয়াকান্দি ও ধুনট উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের যমুনা নদীর চরাঞ্চল ও যমুনা তীরবর্তী গ্রামগুলোর নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। 

জানা যায়, ধুনট উপজেলার ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নে যমুনা নদীর বৈশাখী, রাধানগর ও বথুয়ারভিটা চরের প্রায় ৫ শতাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এছাড়া যমুনা তীরের আরো ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দি এলাকার অসংখ্য মানুষ ঘর-বাড়ি ছেলে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে। বন্যা কবলিত এলাকার শিমুলবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া কৈয়াগাড়ী-বরইতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সহরাবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, রাধানগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বৈশাখী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বৈশাখী নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় প্লাবিত হওয়ায় পাঠদানের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। তবে এসব প্রতিষ্ঠানের পাঠদান চালু রাখতে অন্যত্র ব্যবস্থা করা হয়েছে। এদিকে বন্যায় ২৫৫ হেক্টর জমির আউষ ধান, ১৫০ হেক্টর জমির পাট, ৫ হেক্টর জমির রোপা-আমন বীজতলা, ৫ হেক্টর জমির শাক-সবজি, ৪ হেক্টর জমির আখ ও ২ হেক্টর জমির মরিচ ক্ষেত বন্যার পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে।

ধুনটের ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুল করিম আপেল বলেন, 'প্রায় দুই হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বন্যা দুর্গতদের জন্য ত্রাণ, চিকিৎসা ও সুপেয় পানির ব্যবস্থা করতে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।'   
 
ধুনট উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজিয়া সুলতানা বলেন, 'পানিবান্দি দু’হাজার পরিবারের মাঝে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ত্রাণের চাল বিতরণ করা হবে। পানিবন্দি এলাকায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। চিকিৎসা সহায়তার জন্য মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। বন্যা দুর্গতদের সকল ধরনের সহযোগিতা প্রদান করতে উপজেলা প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে।'

মন্তব্য