| প্রচ্ছদ

হুমকির মুখে নওগাঁর রাণীনগর-আত্রাইয়ের বেড়িবাঁধ

কাজী আনিুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ)
পঠিত হয়েছে ৮৭ বার। প্রকাশ: ১৫ জুলাই ২০১৯ ।

নওগাঁর রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ছোট যমুনা নদীর পানি চলতি বর্ষা মৌসুমে হু হু করে বাড়ছে। পানি ঠেকাতে আশির দশকে স্থানীয় সরকারের উদ্যোগে রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলা এলাকায় নদীর তীরে বাঁধটি নির্মাণ করা হয়েছিল। এরপর থেকে কোনো দপ্তর সংস্কার করেনি।

 

বর্তমানে এই বাঁধটি দুই উপজেলার মানুষের গলার কাঁটায় পরিণত হয়েছে। বর্তমানে দুটি উপজেলার বাঁধের প্রায় ৪ কিলোমিটার এলাকা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। রবিবার জেলা প্রশাসক (ভারপ্রাপ্ত) গোলাম শাহ নেওয়াজ, রাণীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বাঁধ এলাকা পরিদর্শন করেছেন।


নান্দাইবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা ইসমাইল হোসেন, গফুর মিয়াসহ অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, 'বর্ষার সময় আমাদের নির্ঘুম রাত কাটে। প্রায় ৩০ বছর পার হলেও কোনো দপ্তর বাঁধটির বিন্দুমাত্র সংস্কার কাজ করেনি। এমনকি কেউ খবরও নেয়নি।'

 
রাণীনগর উপজেলার ৩নং গোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত খাঁন হাসান বলেন, 'সবচেয়ে দুঃখের বিষয় এই বাঁধটি কোন দপ্তরের আওতায় তা এখনও জানতে পারিনি। এই বাঁধ নাকি কোনো দপ্তরেরই নয়। তাই আমি সংস্কার কাজের আবেদন দেবো কোন দপ্তরে। সংস্কার করবে কে?'

 
রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন বলেন, 'বাঁধটি পরিদর্শন করেছি। আমরা চেষ্টা করবো এই সময়ে বাঁধের কোনো সংস্কার করা যায় কিনা। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।'


রাণীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন হেলাল বলেন, 'বাঁধটি এখন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে। কিন্তু বাঁধটি কোন দপ্তরের তা কেউ স্বীকার করছেন না।'


নওগাঁ পানি উন্নয়ন বোডের নির্বাহী প্রকৌশলী সুধাংশু কুমার বলেন, 'বাঁধটি আমরা নির্মাণ করিনি। তাই স্বাভাবিক ভাবেই বাঁধটি আমাদের আওতায় পড়ে না। তবুও আমি পরিদর্শন করার জন্য লোক পাঠিয়েছি। পরিদর্শনের প্রতিবেদন পেলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।' 

মন্তব্য